banglanewspaper

নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার সুখচর ইউনিয়নে ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে সৃষ্ট জোয়ারের পানিতে ভেসে গেছে লিমা আক্তার (৭) নামে এক শিশু। পরিবার ও স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবকদের মাধ্যমে বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করেও তার কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি।

বুধবার সন্ধ্যা ৭টার পর থেকে নিখোঁজ হয় সে, রাত সাড়ে ১০টা পর্যন্ত নিখোঁজ শিশুটির কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি বলে নিশ্চিত করেছেন হাতিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইমরান হোসেন।

নিখোঁজ লিমা আক্তার সুখচর ইউনিয়নের চর আমান উল্যাহ গ্রামের বাবুল মিয়ার মেয়ে।

স্থানীয়রা বলছে, অতিরিক্ত জোয়ারের ফলে দুপুরে বাবুলের ঘরে পানি ডুকে পড়ে। বেলা বাড়ার সাথে সাথে পানির উচ্চতাও বাড়ে। এসময় পরিবারের লোকজনের সাথে নিজ ঘরে ছিল লিমা। সন্ধ্যায় পরিবারের লোকজনের অজান্তে পানিতে পড়ে গেলে জোয়ারের পানিতে ভেসে যায় সে।

হাতিয়া থানার ওসি আবুল খায়ের জানান, খবর পেয়ে শিশুটির পরিবারের লোকজনকে নিয়ে তাকে খোঁজা হচ্ছে।

এদিকে, বুধবার দুপুর থেকে অস্বাভাবিক জোয়ারের পানিতে হাতিয়ার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। পানিবন্দী হয়ে পড়েছে হাজার হাজার মানুষ। জোয়ারের পানিতে ভেসে গেছে পুকুরের মাছ ও জমির ফসল। ৪-৫ ফুট পানিতে তলিয়ে গেছে সুখচর, নলচিরা, চরঈশ্বরের ৪টি গ্রাম। এছাড়াও অস্বাভাবিক জোয়ারে প্লাবিত হয়েছে নিঝুমদ্বীপ ইউনিয়নের মদিনা গ্রাম, বান্দাখালী গ্রাম, মুন্সি গ্রাম, মোল্লা গ্রাম, আদর্শগ্রাম ও ইউনিয়নের ১,২,৩ ৪ নং ওয়ার্ড।

ট্যাগ: bdnewshour24