banglanewspaper

মহামারি করোনাভাইরাসের মধ্যেও থেমে নেই বহুল কাঙ্ক্ষিত পদ্মা সেতু প্রকল্পের কাজ। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত প্রকল্পের সার্বিক ভৌত অগ্রগতি ৮৪ দশমিক ৫০ শতাংশ। এই ধারাবাহিকতায় আগামী বছরের জুনে স্বপ্নের পদ্মা সেতুতে গাড়ি চলবে বলে আশা করা হচ্ছে।

সংসদের বাজেট অধিবেশনে এসব তথ্য জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। বৃহস্পতিবার বিকালে জাতীয় সংসদে ২০২১-২০২২ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট পেশ করেন অর্থমন্ত্রী।


মুস্তফা কামাল বলেন, ‘করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যেও পূর্ণগতিতে এগিয়ে চলছে পদ্মা সেতুর কাজ। ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত প্রকল্পের সার্বিক ভৌত অগ্রগতি ৮৪ দশমিক ৫০ শতাংশ। ২০২২ সালের জুন মাসে যান চলাচলের জন্য পদ্মা সেতু খুলে দেয়া হবে।’

অর্থমন্ত্রীর দেয়া তথ্যমতে, হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুতুবখালি পর্যন্ত র‌্যাম্পসহ ৪৬ দশমিক ৭৩ কিলোমিটার দীর্ঘ ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণের কাজ পুরোদমে এগিয়ে চলছে। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত প্রথম অংশের (বিমানবন্দর-বনানী) প্রায় ৬০ শতাংশ ভৌত অগ্রগতি সাধিত হয়েছে। পুরো প্রকল্পের সার্বিক ভৌত অগ্রগতি ২৪ শতাংশ।

গাজীপুর থেকে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর পর্যন্ত মোট ২০ কিলোমিটার দীর্ঘ বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট বা বিআরটি লেনের নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে।

কর্ণফুলী নদীর তলদেশে ৩ দশমিক ৩২ কিলোমিটার দীর্ঘ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান টানেলের প্রথম টিউবের রিঙ স্থাপনসহ বোরিং শেষে দ্বিতীয় টিউবের বোরিংসহ অন্যান্য নির্মাণকাজ চলমান রয়েছে এবং ইতিমধ্যে ৬৫ শতাংশ ভৌত কাজ সম্পন্ন হয়েছে বলেও জানিয়েছেন মুস্তফা কামাল।

ট্যাগ: bdnewshour24