banglanewspaper

ফুলগাছ খাওয়ায় ছাগলকে দুই হাজার টাকা জরিমানা করে আলোচনায় আসা বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সীমা শারমিনকে বদলি করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে বদলির আদেশ সংক্রান্ত একটি চিঠি পাঠানো হয়েছে। 

বুধবার (০৯ জুন) দুপুরে বগুড়ার জেলা প্রশাসক জিউল হক গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

গত ১৭ মে ফুলগাছ খাওয়ার অভিযোগে ইউএনও সীমা শারমিন একটি ছাগলের মালিককে ২ হাজার টাকা জরিমানা করেন। এর ৯ দিন পর মালিক সাহারা বেগমকে না জানিয়ে ছাগলটির বিক্রির অভিযোগ উঠে। এ নিয়ে গণমাধ্যমে খবর প্রকাশের পর গত ২৭ মে জরিমানার টাকা ইউএনও নিজে ফেরত দিয়ে ছাগলটি সাহারা বেগমের কাছে ফিরিয়ে দেন।

তখন ইউএনও বলেছিলেন, ‘ছাগলের মালিককে সংশোধনের জন্য জরিমানা করেছিলাম, শাস্তি দেয়ার জন্য নয়।’ ওই নারীর ছাগল বিক্রি করে দেয়ার অভিযোগও সত্য নয় বলে তখন জানান ইউএনও। ‘ছাগলটি একজনের জিম্মায় দেয়া হয়েছি ‘- বলেন ইউএনও।

ছাগলকে জরিমানার ঘটনায় দেশজুড়ে তোলপাড় শুরু হলে ইউএনওর বদলির আদেশ বগুড়ায় এসে পৌঁছায়। 

বুধবার দুপুরে ইউএনও সীমা শারমিনের সাথে যোগাযোগ করতে তার মুঠোফোনে একাধিকবার কল করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক জিয়াউল হক বলেন, ‘ওই ভ্রাম্যমাণ আদালতের কোনও বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়ার বিষয় ঠিক নয়। ওই ইউএনও বদলি হয়েছেন। তাকে স্থানীয় সরকার বিভাগে বদলি করা হয়েছে। এটা নিয়মিত বদলি বলা যায়।’

ট্যাগ: bdnewshour24