banglanewspaper

ফাইনালের আগে আরেক ফাইনালই অনুষ্ঠিত হবে মঙ্গলবার ভোরে। তা তো বটেই, কেননা কোপা আমেরিকা ফুটবল টুর্নামেন্টের আগের আসরের দুই ফাইনালিস্ট দলই এবার প্রথম সেমিফাইনাল ম্যাচে মাঠে নামছে। লাতিন আমেরিকার শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে শেষ পর্যন্ত টিকে থাকতে আগামীকাল বাংলাদেশ সময় ভোর ৫টায় একে অপরের বিপক্ষে মাঠে নামবে ব্রাজিল-পেরু।

শিরোপা ধরের রাখার মিশনে এদিন জয়ের কোনো বিকল্প দেখছে না আয়োজক দেশ ব্রাজিল। অন্যদিকে গত আসরে শিরোপা বঞ্চিত হওয়া পেরু নিশ্চয় এবার প্রতিশোধই নিতে চাইবে। তাই দুই দলের মধ্যকার এই ম্যাচটি বেশ রোমাঞ্চই ছড়াবে বলে আশা করছেন ফুটবলবোদ্ধারা।


চলতি আসরে ব্রাজিল এবং পেরু উভয় দলই একই গ্রুপে ছিল। প্রথম রাউন্ডে দুদলের মোকাবেলাতে জয় পেয়েছে তিতের শিষ্যরাই। ওই ম্যাচে তাদের জয়টা ছিল ৪-০ গোল ব্যবধানে। গ্রুপপর্বে চার ম্যাচে সর্বোচ্চ ১০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে থেকেই সেরা আটে উঠে ব্রাজিল। আর কোয়ার্টার ফাইনালপর্বের ম্যাচে চিলিরি বিপক্ষে জিতেছে ১-০ গোল ব্যবধানে।

অন্যদিকে গ্রুপপর্বে চার ম্যাচে ৭ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ রানারআপ হয়ে কোয়ার্টারে উঠে গত আসরের ফাইনালিস্ট পেরু। সেরা আটের খেলায় প্যারাগুয়ের বিপক্ষে ৩-৩ গোলে ড্র হওয়ার পর টাইব্রেকারে জিতেছে ৪-৩ ব্যবধানে।

ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে কে, কোথায়?

ফিফা কর্তৃক প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে নেইমাররা সেরা পাঁচের মধ্যে থাকলেও বিশের মধ্যেও নেই পেরু। দুদলের মধ্যে র‌্যাঙ্কিংয়ের পার্থক্য ২৪ ধাপ। ১৭৪৩ র‌্যাটিং পয়েন্ট নিয়ে বেলজিয়াম এবং ফ্রান্সের পরেই তিন নম্বরে অবস্থান তিতের শিষ্যদের। অন্যদিকে ১৫১২ র‌্যাটিং পয়েন্টে তাদের অবস্থান ২৭ নম্বরে। তাই বলাই ফিফা র‌্যাঙ্কিং মোতাবেক এগিয়ে থাকবে নেইমাররাই।

পরস্পরের মোকাবিলায় জয়-ড্র-হার

১৯৩৬ সালের ২৭ ডিসেম্বর কোপা আমেরিকা ফুটবল টুর্নামেন্টেই ব্রাজিল এবং পেরু একে অপরের বিপক্ষে প্রথম মাঠে নামে। আর দুদলের সর্বশেষ দেখা হয়েছে চলতি আসরের গ্রুপপর্বের ম্যাচে। এখন পর্যন্ত একে অপরের বিপক্ষে মোট ৪৯টি ম্যাচে মাঠে নেমেছে ব্রাজিল-পেরু। এর মধ্যে ৩৫টি ম্যাচেই জিতে নিয়েছে পাঁচবারের বিশ্বকাপজয়ী দল। আর পেরু জয় পেয়েছে মাত্র ৫টি ম্যাচে। বাকি ৯টি ম্যাচ হয়েছে ড্র।

কোপা আমেরিকার পরিসংখ্যান

লাতিন আমেরিকার শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়েই একে অপরের বিপক্ষে প্রথম মাঠে নেমেছিল এই দুদল। সে ম্যাচ জয় এসেছিল ব্রাজিলের পক্ষে। শেষ দেখাতেও হাসি হেসেছে স্বাগতিকরাই। এই পর্যন্ত কোপা আমেরিকায় মোট ২০বার মুখোমুখি হয় ব্রাজিল ও পেরু। স্বাভাবিকভাবেই জয়ের হারে এগিয়ে রয়েছে তিতের শিষ্যরাই। মোট ১৪টি ম্যাচ জেতার পাশাপাশি হেরেছে মাত্র তিনটিতে। আর বাকি তিনটি ম্যাচ অমীমাংসিত ড্র হয়েছে।

কোপায় কলম্বিয়ার বিপক্ষে আর্জেন্টিনার সবচেয়ে বড় জয় ৭-০ গোল ব্যবধানে। এছাড়াও ৭-১ গোল ব্যবধানে জয়ের নজিরও রয়েছে। এদিকে দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে মোটে তিনটি ম্যাচে জয় পাওয়া কলম্বিয়ার সবচেয়ে বড় জয় ৩-১ গোলে।

উল্লেখ্য, পরিসংখ্যানে লিওনেল নেইমাররা এগিয়ে থাকলেও পেরুকে ছোট করে দেখার কোনো অবকাশ নেই। কেননা পূর্বের চেয়ে অনেক বেশি শক্তিশালী হয়েছে উঠেছে পেরু। আর সাম্প্রতিক পারফরমেন্সেও অনেকটাই উন্নতি হয়েছে তাদের।

ট্যাগ: bdnewshour24