banglanewspaper

২৮ বছর পর আন্তর্জাতিক কোনও শিরোপা জিতেছে আর্জেন্টিনা। সেটিও আবার ব্রাজিলের মাটিতে, ব্রাজিলকে হারিয়ে। আর সেই শিরোপা এসেছে লিওনেল মেসির নেতৃত্বে। মারাকানার গ্যালারিতে সাদা-আকাশীর ঢেউ জেগেছে। মেসিরা উল্লাস করছে। বিজয়ের উল্লাসে মেতেছে গোটা বিশ্বের আজেন্টিনার সমর্থকেরা। 

এমন এক দিনে ভিআইপি গ্যালারিতে বসে নেই ডিয়েগো ম্যারাডোনা। আবেগ আর উচ্ছ্বাসে তিনি আজ বারবার দাঁড়িয়ে মেসিদের উদ্দেশ্যে হাততালি ছুড়ে দিচ্ছেন না। আর্জেন্টিনার বিজয়ের এই দিনে ম্যারাডোনাকে মেসিদের নিশ্চয়ই মনে পড়ছে! হয়তো মন থেকে তার উদ্দেশ্যেই এই শিরোপা উৎসগ করছেন মেসি-ডি মারিয়ারা। 

তবে সুদূর বাংলাদেশে বসে আর্জেন্টিনার এই বিজয়ের দিনে ম্যারাডোনাকে খুব করে মনে পড়ছে মাশরাফি বিন মুর্তোজার। 

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে মাশরাফি লিখেছেন, ‘ফুটবলে আর্জেন্টিনাকে সমর্থন করি ডিয়েগোর জন্য। ওর বিদায়ের পর পর আরও অনেকেই এসেছে। শেষমেশ মেসি। কথা হলো কারও না কারও খেলা দেখে মানুষ একটা দলকে সমর্থন করা শুরু করে। আর একটা পর্যায়ে ওই খেলোয়াড় থেকে দলের প্রাধান্যই বেশি হয়। তবে মেসির হাতেই কাপ লাগবে, এই আশা নিয়ে কখনো খেলা দেখিনি; বরং আর্জেন্টিনা জিতবে এই আশা নিয়েই বারবার বসেছি টিভির সামনে।’ 

তিনি লিখেন- ‘মেসি যেদিন খেলবে না, সেদিনও এই দলেরই সাপোর্ট করব, এটাই স্বাভাবিক। না হলে তো ডিয়েগো যাওয়ার পর অন্য দলই করতাম।’

তবে মেসিদের আনন্দের দিনে নেইমারের প্রতিও ভালোবাসা উগড়ে দিয়েছেন ম্যাশ। লিখেছেন- ‘আসলে খেলাটাই এমন। দারুণ এক অনুভূতি হচ্ছে আর্জেন্টিনা জেতায়। সবাই মেসি মেসি করলেও আমার মন পড়ে আছে ওই স্পেশাল ম্যানের (ম্যারাডোনা) দিকে। বেঁচে থাকলে ওর মতো আনন্দ কে পেত জানি না। ওপর থেকে দেখে হয়তো এমনই (আনন্দ) করছেন ম্যারাডোনা।’

ট্যাগ: bdnewshour24