banglanewspaper

গত বছর লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় সেনা সংঘর্ষ ও টানা ৯ মাসব্যাপী সীমান্ত বিবাদের জেরেই ভারত ও চীনের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের অবনতি হয়েছে। বুধবার তাজিকিস্তানে আয়োজিত সাংহাই কো-অপারেশন অর্গানাইজেশনের সম্মেলনে চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ইয়ের সঙ্গে বৈঠকে একথা বলেছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর।

বৈঠকের পর ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় একটি বিবৃতিতে জানিয়েছে, সীমান্ত সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে উচ্চ সামরিক পর্যায়ের বৈঠকেও সম্মত দিয়েছে দুই দেশ।


বুধবার চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের পর এস জয়শঙ্কর টুইটারে লিখেছেন, ‘একতরফা সীমান্ত বদলের চেষ্টা হলে ভারতের পক্ষে তা মেনে নেয়া সম্ভব না। চীনকে তা জানিয়ে দেয়া হয়েছে। আমাদের মাথায় রাখা উচিত, দুই দেশের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উন্নতির জন্য সীমান্ত এলাকায় শান্তি এবং স্থিতাবস্থা বজায় রাখা জরুরি।’

লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা নিয়ে বিবাদ মেটাতে গত বছর মস্কোয় নিজেদের মধ্যে বৈঠক করেছিলেন দুই দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। সেই বৈঠকে সীমান্ত থেকে সেনা প্রত্যাহারের বিষয় নিয়ে দুই দেশের মধ্যে যে চুক্তি হয়েছে, তা মেনে চলা জরুরি বলেও ওয়াংকে মনে করিয়ে দিয়েছেন জয়শঙ্কর।

তার প্রেক্ষিতেই ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘সীমান্ত সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে সহযোগিতা করবে চীন, এটাই আশা করে ভারত। কিন্তু এখনো অনেক এলাকা রয়েছে যেখানে সমাধান অধরা রয়ে গিয়েছে।’

ট্যাগ: bdnewshour24