banglanewspaper

‘সাকিব হাসলে হাসে বাংলাদেশ’- আরও একবার প্রমাণ দিলেন টাইগার অলরাউন্ডার। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে পরাজয়ের শঙ্কা মাথা চাড়া দিয়েছিল। কিন্তু হাল ছাড়েননি সাকিব আল হাসান। শক্ত হাতে লড়াই চালিয়ে যান। প্রায় ২ বছর পর ওয়ানডে ফরম্যাটে সেঞ্চুরির আশাও জাগিয়েছিলেন। তবে ৯৬ রানে অপরাজিত থেকে ম্যাচ শেষ করেন তিনি। সাকিব খানিক আক্ষেপে পুড়লেও জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৩ উইকেটের জয়ে পেয়েছে বাংলাদেশ দল। 

ম্যাচ জয়ের পাশাপাশি দীর্ঘ এক যুগ পর জিম্বাবুয়েতে ওয়ানডে সিরিজ জয়ের স্বাদ পেল টাইগাররা। সঙ্গে ওয়ানডে সুপার লিগের মূল্যবান আরও ১০ পয়েন্ট পেয়ে গেল বাংলাদেশ। যার সবই আসলো সাকিবের হাত ধরে।

২০০৯ সালে শেষবার জিম্বাবুয়ে গিয়ে ওয়ানডে সিরিজ জিতেছিল বাংলাদেশ দল। ৫ ম্যাচের সিরিজ ৪-১ ব্যবধানে জয় করেছিল সফরকারীরা। এক যুগ পর জিম্বাবুয়েতে আবার সিরিজ জয় টাইগারদের।

সাকিবকে নিয়ে কানাঘুষা অনেকদিন ধরেই। চলতি বছরের শুরুতে নিষেধাজ্ঞা থেকে ফিরে সেই যে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে রানের দেখা পেয়েছিলেন সাকিব, এরপর দীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়েও নিজ ব্যাটে রান খরা কাটাতে পারছিলেন না। স্বীকৃত ক্রিকেটে কোনোভাবেই পঞ্চাশঊর্ধ্ব ইনিংস আসছিল না তার ব্যাটে। তবে যোদ্ধা সাকিবের প্রতি বিশ্বাস ছিল টাইগার টিম ম্যানেজমেন্টের। অধিনায়ক তামিম ইকবালও বলেছেন, খুব দ্রুত সাকিবে ব্যাটে রান দেখা যাবে।

অবশেষে সে দিনটি আসলো হারারেতে। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ২৪১ রানের লক্ষ্য টপকাতে নেমে সতীর্থরা একেবারেই সুবিধা করতে পারেননি। যোগ দেন আসা-যাওয়ার মিছিলে। তবে টলানো যায়নি সাকিবকে। সেঞ্চুরি হাতছাড়া হলেও ১০৯ বলে খেলেন ৯৬ রানের অপরাজিত ইনিংস। যেখানে ৮টি চারের মারে এই ইনিংস সাজান তিনি। এর আগে বল হাতেও ২ উইকেট পান এই অলরাউন্ডার।

অষ্টম ব্যাটসম্যান হিসাবে মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন যখন ক্রিজে এলেন তখন পরাজয়ের প্রহর গুনছিল বাংলাদেশ। এমন পরিস্থিতিতে অনেক সময়ই দিক হারিয়েছে টাইগারা। বড় শট খেলে চাপ কমানোর চেষ্টায় হাতছাড়া করেছে জয়। এদিন এমন কিছু হলো না সাকিবের জন্য। তরুণ সতীর্থকে নিয়ে ঠাণ্ডা মাথায় অবিচ্ছেদ্য ৬৯ রানের চমৎকার এক জুটিতে দলকে নিয়ে গেলেন জয়ের বন্দরে।

লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে সাবধানী শুরু বাংলাদেশের। তামিম-লিটনের উদ্বোধনী জুটিতে আসে ৩৯ রান। তবে এরপর ১০ রানের ব্যবধানে ৩ উইকেট হারায় সফরকারীরা। তামিম ২০ রান করে আউট হওয়ার পর একে একে ফিরে যান লিটন (২১) ও মিঠুন (২)। মোসাদ্দেকের সঙ্গে সাকিবের জুটি থামে ২৪ রানে। আগের ম্যাচের মতো দ্বিতীয় ম্যাচেও ৫ রানে কাটা পড়েন তিনি। উইকেটে পিছনে বল যাওয়ায় দৌড়ে রান নিতে চেয়েছিলেন মোসাদ্দেক। তবে লক্ষ্যে পোঁছানোর আগে সরাসরি থ্রোতে উইকেট ভেঙে দেন চাকাভা।

এক প্রান্ত আগলে রেখে তিন নম্বরে নামা সাকিব দেখেছেন উইকেট বিলিয়ে দেওয়ার প্রদর্শনী। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে নিয়ে বিপর্যয় সামলানোর চেষ্টা করেন সাকিব। তবে খুব বেশি সুবিধা হয়নি। রিয়াদকে ২৬ রানে ফিরিয়ে সাকিবের সাথে ৫৫ রানের জুটি ভাঙেন মুজারাবানি। পরে আফিফ হোসেন ও সাইফউদ্দিনকে নিয়ে জয়ের বাকি আনুষ্ঠানিকতা সারেন সাকিব। বীরোচিত এক ইনিংস খেলে নিজে অপরাজিত থাকেন ৯৬ রানে।

এর আগে হারারের স্পোর্টস ক্লাব মাঠে টস জিতে আগে ব্যাট করতে নামে জিম্বাবুয়ে। দলের হয়ে ইনিংস শুরু করতে নেমে সুবিধা করতে পারেননি ওপেনার টিনাশে কামুনহুকামউই। তাসকিনের বলে আফিফের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ১ রান করে। আরেক ওপেনার তাদিওয়ানাশে মারুমানিও মেহেদী হাসান মিরাজের শিকারে পরিণত হন ১৩ রান করে। তৃতীয় উইকেটে ৪৭ রানের জুটি গড়ে দলকে বিপদমুক্ত করেন রেগিস চাকাভা ও টেলর। চাকাভা ৩২ বলে ২৬ রান করে আউট হলে ভাঙে তাদের এই পার্টনারশিপ।

টেলর বড় রানের দিকে ছুটছিলেন, তবে বিস্ময়করভাবে আউট হন তিনি। শরীফুলের শর্ট বলে আপার কাট করতে চেয়েছিলেন। ব্যর্থ হলেন, এরপর ব্যাট নামিয়ে আনতে গিয়ে তা লাগল স্টাম্পে। ৪৬ রানে সাজঘরের পথ ধরলেন তিনি। এরপর মুজারাবানি দলের দায়িত্ব কাঁধে তুলে নেন। খেলেন ওয়ানডেতে ক্যারিয়ার সেরা ৫৬ রানের ইনিংস। সঙ্গে ডিওন মেয়ার্সের ৩৪ ও সিকান্দার রাজার ৩০ রানের কল্যাণে ৯ উইকেট হারিয়ে স্কোর বোর্ডে ২৪০ রানের পুঁজি পায় জিম্বাবুয়ে।

বাংলাদেশের হয়ে বিশ্বকাপজয়ী অনূর্ধ্ব-১৯ দলের পেসার শরিফুল ইসলাম একাই নেন ৪ উইকেট। একে একে ফেরান টেলর, মাধেভেরে, লুক জংওয়ে ও ব্লেসিং মুজারাবানিকে। স্পিনার সাকিব আ

ট্যাগ: bdnewshour24

খেলা
বৃষ্টির আগে উইকেটের বৃষ্টি নামালেন রোচ

banglanewspaper

দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে ভালোই বিপাকে পড়েছে বাংলাদেশ। ক্যারিবীয়দের দেয়া ১৭৪ রানের লিড টপকাতে নেমে টপ-অর্ডারের তিন ব্যাটর ফিরেছেন সাজঘরে।

ঘরের মাঠে ক্যারিবীয় বোলারদের খেলা কতটা কঠিন সেটা হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছেন টাইগার ব্যাটাররা। ইনিংসের তৃতীয় ওভারের চতুর্থ বলে কেমার রোচের অনেক বাইরের বল খেলতে গিয়ে তামিম ইকবাল ক্যাচ দেন উইকেট-রক্ষক জশুয়া দ্য সিলভার হাতে। টাইগার ওপেনারকে রোচ তুলে নেন ক্যারিয়ারের ২৫০তম উইকেট।

তামিমের ফেরার পর আরেক ওপেনার মাহমুদুল হাসান জয়কেও ফিরিয়েছেন রোচ। বাউন্সার সামলাতে না পেরে ক্যাচ তুলে দেন স্লিপে থাকা জার্মেইন ব্ল্যাকউডের হাতে। জয়ের ফেরা ১৩ রান করে।

এনামুল হক বিজয় নিজেকে প্রমাণ করতে ব্যর্থ আট বছর পর ফিরেও। মাত্র ৪ রান করে রোচের বলেই হয়েছেন এলবিডব্লু।

মাত্র ৮.৫ ওভারে ৩ উইকেটে ৩২ রান তোলার পর নেমেছে ঝুম বৃষ্টি। ১০ রানে অপরাজিত আছেন নাজমুল হোসেন শান্ত।

এর আগে সেইন্ট লুসিয়াতে প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের করা ২৩৪ রানের জবাবে ব্যাট করে ৪০৮ রানে থামে ক্যারিবীয়রা। বাংলাদেশের সামনে লিড ছুঁড়ে দেয় ১৭৪ রান।

ট্যাগ:

খেলা
পদ্মা সেতু উপহার দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ সাকিব-তামিমের

banglanewspaper

পদ্মা সেতুর জন্য দুই যুগের অপেক্ষার অবসান ঘটলো। ১৯৯৮ সালে প্রথমবারের মতো উত্তাল পদ্মার উপর সেতু নির্মাণের প্রস্তাব করা হয়। তবে নানান বাধা-বিপত্তির কারণে পদ্মা সেতুর স্বপ্ন বাস্তবায়িত হবে কিনা তা নিয়ে ছিল সংশয়।

তবে দেশনেত্রী শেখ হাসিনার নিবেদন এবং চেষ্টায় দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের স্বপ্নের পদ্মা সেতু অবশেষে বাস্তবায়িত হয়েছে। আজ (২৪ জুন) বেলা ১২টায় দেশনেত্রী শেখ হাসিনা নিজে উদ্বোধন করেছেন খরস্রোতা পদ্মার বুকে ৬.১৫ কিলোমিটার দৈর্ঘ্য বিশিষ্ট পদ্মা সেতু। দেশের মানুষকে পদ্মা সেতু উপহার দেওয়ার জন্য তাই প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন জাতীয় দলের দুই অধিনায়ক সাকিব আল হাসান এবং তামিম ইকবাল।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ থেকে এক ভিডিওবার্তায় জাতীয় দলের টেস্ট অধিনায়ক সাকিব বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ। বিশেষ করে দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের পক্ষ থেকে। কারণ আমার কাছে মনে হয়, এটা দক্ষিণাঞ্চলের উন্নয়নের জন্য সবচেয়ে বড় অবদান।

এটা পুরো বাঙালি জাতির একটা স্বপ্ন ছিল, যেটা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারণে সম্ভব হয়েছে। সেজন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে আবার ধন্যবাদ জানাই। আশা করছি, এই পদ্মা সেতু বাংলাদেশের অর্থনীতিকে আরও সামনে এগিয়ে নিয়ে যাবে।’

তামিম ইকবাল নিজের ভিডিও বার্তায় বলেন, ‘আমার মনে হয়, বাংলাদেশের জন্য এটা বিশাল বড় অর্জন। একটা সময় এমন ছিল যে, আমরা কেউ শিউর ছিলাম না, পদ্মা সেতু হবে কি হবে না। কিন্তু মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।

উনার নিবেদনের কারণে, চেষ্টার কারণে আজকে আমরা সবাই পদ্মা সেতু পেয়েছি। সাথে এটাও বলবো, যারা এই প্রজেক্টের সঙ্গে যুক্ত ছিল, তাদেরকেও অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ।

বিশেষ করে শ্রমিক যারা কাজ করেছেন, আপনাদেরকে একটা কথা বলতে চাই। আপনারা যে জিনিসটা করেছেন, এটা বাঙালি জাতি আজীবন মনে রাখবে। আমার এবং বাংলাদেশ ক্রিকেট টিমের পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।’

ট্যাগ:

খেলা
টি-টোয়েন্টি দলে মিরাজ, ওয়ানডে দলে যুক্ত হচ্ছেন এবাদত

banglanewspaper

ইনজুরির কারণে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর শেষ হয়ে ইয়াসির আলী রাব্বির। তার বদলে ৩ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি দলে যুক্ত হচ্ছেন টেস্ট ও ওয়ানডে দলে থাকা অল-রাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজ।

দলের একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র জানিয়েছে, মিরাজ ছাড়াও ওয়ানডে দলে যুক্ত করা হচ্ছে টেস্ট দলে থাকা পেসার এবাদত হোসেনকে। উইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে দলে ডাক পাচ্ছেন এই পেসার।

টেস্ট দলের নিয়মিত সদস্য এবাদত হোসেন। গতি দিয়েই মূলত জায়গা করে নেয়া দলে। উইন্ডিজ সফরে দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টেও দেখিয়েছেন গতির ঝলক। খেলার কথা রয়েছে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টও।

তবে এবাদতকে রাখা হচ্ছে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে। দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের পর শুরু হবে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। এরপর ১০ জুলাই থেকে শুরু হবে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ।

এ নিয়ে দ্বিতীয় বার ওয়ানডে দলে ডাক পেতে যাচ্ছেন এই পেসার। এর আগে চলতি বছর আফগানিস্তানের বিপক্ষে ৩ ম্যাচের ওয়ানডে দলে ডাক পেয়েছিলেন এবাদত হোসেন। যদিও খেলানো হয়নি তাকে।

এদিকে ইনজুরির কারণে উইন্ডিজ সফর শুরুর আগেই শেষ হয়ে গেছে পেস অল-রাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের।

ট্যাগ:

খেলা
উইন্ডিজ সফরটাই শেষ ইয়াসির আলীর

banglanewspaper

টেস্ট সিরিজের দুই ম্যাচের দল থেকে ছিটকে পড়ার পর ইয়াসির আলীর জন্য শেষ হয়ে গেল ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর। অ্যান্টিগায় প্রথম টেস্টের আগে ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রেসিডেন্ট একাদশের বিপক্ষে তিনদিনের অনুশীলন ম্যাচের প্রথম দিনে পিঠে চোট পেয়ে মাঠ ছাড়েন।

সেই চোট কাটিয়ে উঠতে না পারায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ থেকে ছিটকে পড়ার পর ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজের দল থেকেও থেকে ছিটকে গেছেন টাইগার ব্যাটার ইয়াসির আলী চৌধুরী।

গত ১০ জুন এমআরআই স্ক্যান করানো হয় ইয়াসিরের। আশা করা হচ্ছিল চোট কাটিয়ে ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য নির্দিষ্ট সময়ের ভেতর দলের সঙ্গে যোগ দিতে পারবেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেটি আর পারেননি এই ব্যাটার।

ইয়াসিরের বর্তমান অবস্থা নিয়ে জাতীয় দলের ফিজিও বায়েজেদুল ইসলাম বলেছেন: ‘ইয়াসির আলী তার পিঠের চোট থেকে প্রত্যাশিতভাবে সেরে উঠছে পারছেন না। এখনও সে পুনর্বাসন শুরু করতে পারেনি। প্রায় দুই সপ্তাহের বিশ্রামের পরেও যেহেতু সে এখনও পুনর্বাসন শুরু করতে পারেনি তাই স্বাভাবিক ভাবেই সফরেরর বাকি ম্যাচগুলো মিস করবে, তাই ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে দলের বাইরে যেতে হচ্ছে তাকে।’

বিসিবি আরও জানিয়েছে, দ্রুতই দেশে ফিরবেন ইয়াসির আলী। দেশে ফেরার পর বিসিবি’র মেডিকেল টিমের তত্ত্বাবধানে থাকবেন।

ট্যাগ:

খেলা
বাংলাদেশ-উইন্ডিজ সিরিজের বাকি ম্যাচগুলো সম্প্রচার হবে টিভিতে

banglanewspaper

অনেক জল ঘোলার পর অবশেষে বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজের বাকি সব ম্যাচ সরাসরি সম্প্রচার হবে টেলিভিশনে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচ দেখানো হয়নি বাংলাদেশের কোনও টিভি চ্যানেলে।

স্বাগতিক ক্রিকেট বোর্ডই টিভি সম্প্রচার স্বত্ব বিক্রি করেছিল তৃতীয় পক্ষ টোটাল স্পোর্টস মার্কেটিংয়ের (টিএসএম) মাধ্যমে। কিন্তু টিএসএম-এর সঙ্গে বাংলাদেশের আগ্রহী চ্যানেলগুলোর সঙ্গে বনিবনা হয়নি শুরুর দিকে। তাই কোনও চ্যানেলে দেখা যায়নি ম্যাচটি।

শেষ পর্যন্ত টিভি সত্ত্ব কিনেছে দেশের একমাত্র স্পোর্টস চ্যানেল ‘টি-স্পোর্টস’। তারা সিরিজের বাকি একটি টেস্ট এবং তিনটি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি ম্যাচগুলো দেখাবে।

এ বিষয়টি টি-স্পোর্টসের প্রধান নির্বাহী ইশতিয়াক সাদেক বলেছেন, ‘দেশের একমাত্র স্পোর্টস চ্যানেল হওয়ার কারণে আমাদের দর্শকদের প্রতি দায় আছে এবং সেটা বিবেচনায় নিয়ে আমরা ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের বাকি অংশ সম্প্রচারের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

শুরুর দিকে কোনও চ্যানেলে খেলা না দেখানোয় বাংলাদেশি দর্শকদের খেলা দেখতে হয়েছিল আইসিসি’র ওয়েবসাইটে ২ ডলার খরচ করে।

ট্যাগ: