banglanewspaper

পর্নো ছবি তৈরির অভিযোগে বলিউড তারকা শিল্পা শেঠির স্বামী রাজ কুন্দ্রাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গতকাল সোমবার রাতে তাকে গ্রেফতার করেছে মুম্বাই পুলিশ। 

শিল্পার স্বামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ, পর্নো বানিয়ে তিনি তা বিশেষ অ্যাপের মাধ্যমে ছড়িয়ে দিতেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। একই মামলায় ইতিমধ্যে পুলিশের জালে আরও ৯জন ভারতীয় ধরা পড়েছে।

ভারতীয় গণমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস ও হিন্দুস্থান টাইমস সূত্রে জানা গেছে, পর্নো সিনেমা তৈরি এবং বিভিন্ন অ্যাপের মাধ্যমে তা প্রকাশ করা নিয়ে গত ফেব্রুয়ারিতে একটি মামলা দায়ের করেছিল মুম্বাই পুলিশের ক্রাইম ব্রাঞ্চ। 

মুম্বাই পুলিশের একটি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, তদন্তের পর তারা রাজ কুন্দারকে গ্রেপ্তার করেছেন। যিনি এই মামলায় মূল ষড়যন্ত্রকারী বলে মনে করছেন পুলিশ। 

এ বিষয়ে পুলিশের কাছে পর্যাপ্ত তথ্য আছে। যার প্রেক্ষিতেই সোমবার রাজ কুন্দ্রাকে ডেকে পাঠায় মুম্বাই পুলিশই পুলিশ। রাত আটটায় তিনি সেখানে হাজিরা দেন। জিজ্ঞাসাবাদের পর তাকে গ্রেফতার করা হয়। মুম্বাই পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে বলেছে, তার বিরুদ্ধে সুনিদিষ্ট প্রমাণ তারা হাতে পেয়েছে।

পর্নগ্রাফিক চলচ্চিত্র নিয়ে তদন্তে নেমে পুলিশ তাতে রাজ কুন্দ্রার সম্পৃক্ততার তথ্য পায় বলে এনডিটিভি জানিয়েছে।

মুম্বাই পুলিশ বলছে, এসবে রাজ কুন্দ্রার জড়িত থাকার বিষযে যথেষ্ট তথ্যপ্রমাণ মিলেছে, তবে তদন্ত এখনও অব্যাহত রয়েছে।

এদিকে পুলিশের আনা অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে রাজ কুন্দ্রা বলেছেন, তিনি অন্তর্বর্তীকালীন জামিন চাইবেন।

পুলিশের একটি সূত্র বলছে, একই মামলায় আগেই উমেশ কামাত নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। যিনি নিজের বয়ানে দাবি করেছেন যে তিনি রাজ কুন্দ্রার সংস্থায় কাজ করতেন। থাকেন মুম্বাইয়ের ভাসি এলাকায়। গত ৬ ফেব্রুয়ারিতে গ্রেপ্তার হওয়া এক মডেল এবং অভিনেত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদের সময় কামাতের নাম উঠে এসেছিল। 

ব্রিটেনের একটি সংস্থায় সমন্বয়কারী হিসেবে কাজ করতেন কামাত। যিনি ওই মডেলের থেকে অশ্লীল ভিডিও নিতেন। সেগুলি পাঠিয়ে দিতেন ওই ব্রিটেনের সংস্থার কাছে। তারপর সেই ভিডিওগুলি একটি অ্যাপে আপলোড করা হত।

গত ৪ ফেব্রুয়ারি পর্নো ছবি তৈরির সেই চক্রের কীর্তি ফাঁস হয়েছিল পুলিশের কাছে। সে সময় মুম্বাইয়ের একটি বাংলোয় অভিযান চালিয়ে ওয়েব সিরিজ এবং শর্ট ফিল্মে কাজ দেওয়ার নামে তরুণ-তরুণীদের ফাঁসানোর অভিযোগে পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। যারা ওই তরুণ-তরুণীদের পর্নো ছবিতে অভিনয় করতে বাধ্য করতেন ।

বলিউডের অভিনেত্রী শিল্পা শেঠি ২০০৯ সালে বিয়ে করেন শিল্পপতি রাজ কুন্দ্রাকে। বিলাসবহুল জীবনযাপন তাদের। তাদের সংসারে দুই সন্তান রয়েছে। ২০১৩ সালে মৃত গ্যাংস্টার ইকবাল মির্চির সঙ্গে অর্থ পাচার কেলেঙ্কারিতে জড়িত থাকার অভিযোগ ছিল শিল্পার স্বামী রাজের বিরুদ্ধে।

ব্যবসায়ী রাজ কুন্দ্রা জে এল স্ট্রিম অ্যাপের মালিক। আইপিএল দল রাজস্থান রয়্যালসেও তার মালিকানা রয়েছে। ২০০৯ সালে রাজ কুন্দ্রাকে বিয়ে করার পর অভিনয় থেকে অনেকটাই দূরে রয়েছেন তারকা অভিনেত্রী শিল্পা শেঠি। দুই সন্তান ও স্বামীকে নিয়ে সংসারে ব্যস্ত থাকলেও প্রচারের আলোয় তিনি আসছেন প্রায়ই।
 

ট্যাগ: bdnewshour24