banglanewspaper

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্তনি ব্লিংকেন বুধবার কুয়েতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (হু) প্রধান টেড্রস আধানম গ্যাব্রিয়েসুসের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন। এ সময় করোনার উৎস জানতে চীনে হুর গবেষণার উদ্যোগকে স্বাগত জানান ব্লিংকেন।

উপসাগরীয় এই আরব দেশটিতে পৌঁছে টুইট করেন অ্যান্তনি ব্লিংকেন। টুইটে তিনি লিখেন, ‘করোনার উৎস জানতে হুর অতিরিক্ত গবেষণার উদ্যোগকে সমর্থন করে যুক্তরাষ্ট্র।’


ব্লিংকেন হু মহাপরিচালকের সঙ্গে যে সাক্ষাৎ করেছেন তা প্রকাশিত শিডিউলের অংশ ছিল না। এক বিবৃতিতে যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্টের মুখপাত্র নেড প্রাইস বলেছেন, ‘করোনার উৎস জানতে দ্বিতীয় ধাপের গবেষণা সময়মতো, প্রমাণ ভিত্তিক, স্বচ্ছ, বিশেষজ্ঞদের নেতৃত্বে ও কোনো প্রকার হস্তক্ষেপ ছাড়াই হওয়ার প্রতি জোর দিয়েছেন অ্যান্তনি ব্লিংকেন। এ বিষয়ে বিশ্ব সম্প্রদায়কে এক হতে হবে বলে গুরুত্ব আরোপ করেন তিনি।’

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের উৎস এখনো জানা যায়নি। এ নিয়ে চীনে এক ধাপে গবেষণাও করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু)। কিন্তু তাতে স্পষ্ট তথ্য উঠে আসেনি। তাই চীনে দ্বিতীয় ধাপের অনুসন্ধান করতে চায় হু। কিন্তু চীন তাতে না করে দিয়েছে। উল্টা চীনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, করোনার উৎস জানতে হলে যুক্তরাষ্ট্রের ফোর্ট ডেট্রিক ল্যাবে গবেষণা করা উচিত।

চীনের উহানের গবেষণাগার থেকে করোনাভাইরাস ছড়িয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বারবার এই অভিযোগ করেছিলেন। কিন্তু চীনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, উহানের গবেষণাগারে আন্তর্জাতিক সব নিয়ম মেনে গবেষণা করা হয়।

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান টুইটারে লিখেছেন, ‘যদি ল্যাবে অনুসন্ধান চালাতেই হয় তাহলে হুর বিশেষজ্ঞদের উচিত ফোর্ট ডেট্রিকে যাওয়া। যুক্তরাষ্ট্রেরও উচিত হবে দায়িত্ব সহকারে হুর বিশেষজ্ঞদের আমন্ত্রণ জানানো। আর এভাবেই বিশ্ববাসীর সামনে আসল সত্যটা বেরিয়ে আসবে।’

ট্যাগ: bdnewshour24