banglanewspaper

কিউবার উপর নতুন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করল যুক্তরাষ্ট্র। শুক্রবার কিউবার ন্যাশনাল রেভ্যুলেশনারি পুলিশ ও এটির উচ্চ পর্যায়ের দুই কর্মকর্তার উপর নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি ঘোষণা করে বাইডেন প্রশাসন। সম্প্রতি কিউবায় সরকারবিরোধী বিক্ষোভ হয়। বিক্ষোভকারীদের উপর দমন পীড়ন চালানো হয়। এর পরই কিউবার কমিউনিস্ট সরকারকে চাপে রাখতে যুক্তরাষ্ট্র এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সূত্র: আল জাজিরা।

হোয়াইট হাউজে কিউবান-আমেরিকানদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। এসময় জো বাইডেন বলেন, ‘কিউবা থেকে ভেসে আসা স্বাধীনতার কান্না আমরা শুনতে পাই। কিউবার মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য যুক্তরাষ্ট্র সমন্বিত পদক্ষেপ গ্রহণ করছে। সামনে আরো নিষেধাজ্ঞা আসবে।’


বাইডেন প্রশাসন বলেছে, কিউবার মানুষের জন্য আরো কী করা যায় তা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ভাবছে। যুক্তরাষ্ট্রের রেমিট্যান্স পলিসি পর্যালোচনার জন্য কমিটি গঠন করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র থেকে কিউবায় যারা রেমিট্যান্স পাঠায় তারা যেন সরাসরি তাদের পরিবারের কাছে পাঠাতে পারে সে বিষয় নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ভাবছে। পাঠানো রেমিট্যান্স থেকে যেন কিউবা সরকার একটুও কাটতে না পারে।

গত ১১ জুলাই রাজধানী হাভানা সহ কিউবার বিভিন্ন প্রান্তে সরকারবিরোধী বিক্ষোভে নামে হাজার হাজার মানুষ। খাদ্য স্বল্পতা, বিদ্যুৎ ঘাটতি, করোনা মোকাবেলায় সরকারের ব্যর্থতা ইত্যাদির বিরুদ্ধে তারা বিক্ষোভ করে। ১৯৯০ এর দশকের পর কিউবায় এই প্রথম এমন বিক্ষোভ হলো।

যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা রাজ্যের ১.৫ মিলিয়ন কিউবান-আমেরিকানের মধ্যে গত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বেশিরভাগ মানুষই রিবাপলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ভোট দিয়েছিল। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে এই রাজন্য সুইং স্টেট হিসেবে পরিচিত। তাই ২০২৪ সালের নির্বাচনে কিউবান-আমেরিকানদের সমর্থন পাওয়াটা ডেমোক্রেটিক পার্টির জন্য গুরুত্বপূর্ণ।

ট্যাগ: bdnewshour24