banglanewspaper

আফগানিস্তানে ক্ষমতার মসনদ দখল করে নিয়েছে তালেবান। কিন্তু এখনো তারা পাঞ্জশির প্রদেশ দখল করতে পারেনি। তালেবান সর্বোচ্চ চেষ্টা করছে প্রদেশটি দখল করার। কিন্তু সেখানকার প্রতিরোধ বাহিনী কোনোভাবেই তালেবান সদস্যদের ঢুকতে দিতে চায় না।

তালেবান এর আগে দাবি করেছিল, তারা ঢুকে পড়েছে পাঞ্জশির উপত্যকায়। কোনো প্রতিরোধের মুখে পড়তে হয়নি তাদের। যার ফলে কোনো রক্তপাতও হয়নি। আফগানিস্তানের স্থানীয় সংবাদমাধ্যম তোলো নিউজকে কয়েকদিন আগে তালেবানের সাংস্কৃতিক কমিশনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সদস্য আনামুল্লা সামাঙ্গানি বলেছিলেন, ‘কোনো যুদ্ধ হয়নি। হয়নি কোনো রক্তপাত। তালেবানের নেতৃত্বে ইসলামি আমিরাত সেনারা বিভিন্ন দিক থেকে এগিয়ে গিয়েছিল পাঞ্জশির উপত্যকার দিকে। তারা দলে দলে ঢুকেও পড়েছে পাঞ্জশিরে।’


কিন্তু তালেবানের দাবি মিথ্যা বলে উল্লেখ করেছে পাঞ্জশিরের প্রতিরোধ বাহিনী। পাঞ্জশির উপত্যকার নর্দার্ন অ্যালায়েন্স এর প্রধান মোহাম্মদ আলমাস জাহিদ আফগান সংবাদমাধ্যম তোলো নিউজকে বলেছেন, ‘তালেবানের সঙ্গে লড়াইয়ের কোনো প্রশ্নই ওঠে না। পাঞ্জশির উপত্যকায় ওদের ঢুকে পড়া তো দূরের কথা, তালেবান এখনো উপত্যকার কাছেই ঘেঁষতে পারেনি।’

তালেবানের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য জনপ্রিয় আফগান কমান্ডার আহমেদ শাহ মাসুদের পুত্র আহমেদ মাসুদ ও আশরাফ গনি সরকার উৎপাটিত হওয়ার পর দেশটির তদারকি প্রেসিডেন্ট হিসাবে কাজ চালিয়ে যাওয়া তাজিক নেতা আমরুল্লাহ সালেহর নেতৃত্বেই গত ১৫ আগস্টের পর ফের তালেবানের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে গর্জে উঠেছে কাবুলের ৯০ কিলোমিটার উত্তরে অবস্থিত পাঞ্জশির উপত্যকা।

১৯৯৬ সাল থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত আফগানিস্তান তালেবানের দখলে থাকার সময়ও তাদের কাছে মাথা নোয়ায়নি এই প্রতিবাদী পাঞ্জশির উপত্যকার তাজিক জনগোষ্ঠীর মানুষ।

ট্যাগ: bdnewshour24