banglanewspaper

দ্বিতীয় স্ত্রীর সঙ্গে বিচ্ছেদের বছর গড়াতেই আবার বিয়ের পিঁড়িতে বসতে চলেছেন ছোট পর্দার বর্তমান সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্ব। পাত্রীর নাম শাম্মা দেওয়ান। তিনি আমেরিকা প্রবাসী, সেখানকারই নাগরিক। ২ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার ঢাকার রাজারবাগের একটি রেস্তোরাঁয় তার এবং অপূর্বর বিয়ের আসর বসতে চলেছে। সেখানে দুই পরিবারের সদস্য ও কাছের কয়েকজন আত্মীয় উপস্থিত থাকবেন।

যদিও মিডিয়াপাড়ায় ফিসফাস ৩১ আগস্ট অপূর্বর গায়ে হলুদের অনুষ্ঠান হয়ে গেছে, বিয়ে করেছেন ১ সেপ্টেম্বর, বুধবার। এ প্রসঙ্গে অপূর্ব গণমাধ্যমকে বলেন, ‘বিয়ে করছি ভাই। চুরি বা ক্রাইম তো না। ফলে এটা নিয়ে লুকোচুরির কিছু নেই। আমি বিয়ে করছি, এটা সত্যি। তবে সেটা ২ সেপ্টেম্বর। একেবারেই পারিবারিক সিদ্ধান্তে এই বিয়ের উদ্যোগ। হবু স্ত্রী মিডিয়ার বাইরের মানুষ। ওর জন্ম ও বেড়ে ওঠা আমেরিকায়। তবে তার পৈতৃক নিবাস ঢাকার লালমাটিয়া।’

অপূর্ব আরও বলেন, ‘আমার প্ল্যান ছিল বিয়ের অনুষ্ঠানে মিডিয়ার সবাইকে দাওয়াত করবো। কিন্তু করোনার কারণে সেটা সম্ভব হচ্ছে না। পরে ভাবলাম বিয়ের পরদিন বন্ধুদের সঙ্গে বসে খবরটি আনুষ্ঠানিকভাবে জানাবো। সেটাও সম্ভব হচ্ছে না। এরইমধ্যে বিষয়টি নিয়ে কানাঘুষা শুরু হয়েছে। তাই বিষয়টি চাপিয়ে রাখার আগ্রহ পাইনি। আমি পবিত্র একটি সম্পর্কে জড়াচ্ছি। এ বিষয়ে সবার দোয়া ও সহযোগিতা কামনা করছি।’

অপূর্বর তৃতীয় এবং তার হবু স্ত্রী শাম্মার এটি দ্বিতীয় বিয়ে হতে চলেছে। ‘বড় ছেলে’ খ্যাত এই অভিনেতা প্রথম বিয়ে করেন ২০১০ সালের ১৮ আগস্ট মডেল ও অভিনেত্রী সাদিয়া জাহান প্রভাকে। ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন তারা। মাত্র ছয় মাস টিকেছিল সে সংসার। প্রভার সাবেক প্রেমিক রাজিবের সঙ্গে তার অবৈধ সম্পর্কের কথা এবং আপত্তিকর কিছু ভিডিও প্রকাশ হওয়ায় ২০১১ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি তাকে ডিভোর্স দেন অপূর্ব।

ওই বছরেরই ২৮ ডিসেম্বর নাজিয়া হাসান অদিতিকে বিয়ে করেন অভিনেতা। ৯ বছর সংসার করার পর গত বছরের ১৭ মে বিকালে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তাদের সংসার ভাঙার খবর প্রকাশ করেন অদিতি। দ্বিতীয় সংসারে অপূর্বর ৬ বছর বয়সী এক ছেলে সন্তান রয়েছে। নাম আয়াশ। কয়েক মাস আগে অদিতি আবার বিয়ে করেছেন। এবার নতুন সংসার পাততে চলেছেন অপূর্বও।

ট্যাগ: bdnewshour24