banglanewspaper

আগামী কয়েক মাসে বেশ বড়সড় রদবদলের মধ্য দিয়ে যাবে ভারতীয় ক্রিকেট দল। অক্টোবর-নভেম্বর হতে যাওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর ভায়তীয় দলের ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টির অধিনায়কত্ব ছেড়ে দিবেন বিরাট কোহলি। তার জায়গায় এ দায়িত্ব নেবেন মারকুটে ওপেনার রোহিত শর্মা। 

বর্তমানে ভারতের তিন ফরম্যাটেরই অধিনায়ক কোহলি। তিনি নিজেই ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টির অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ভারতের শীর্ষস্থানীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে এ খবর। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) নির্ভরযোগ্য সূত্রের বরাত দিয়ে ছাপানো হয়েছে খবরটি। 

গত কয়েক মাস ধরেই এ বিষয়ে রোহিত ও টিম ম্যানেজম্যান্টের সঙ্গে আলোচনা করেছেন রোহিত। বিসিসিআইয়ের সূত্র টাইমস অব ইন্ডিয়াকে বলেছেন, ‘বিরাট নিজেই ঘোষনাটা দেবেন। সে এখন নিজের ব্যাটিংয়ের দিকে মনোযোগী হতে চাচ্ছে এবং যেটা তার সবসময়ের লক্ষ্য, বিশ্বের সেরা হওয়া-তা পূরণে এগিয়ে যাবে।’

কোহলি এখন অনুভব করছেন ২০২২-২০২৩ সালের বিশ্বকাপে দলের ভালোর জন্য নিজের ব্যাটিংয়ে আরও বাড়তি সময় দেয়া প্রয়োজন। ২০১৮ সাল থেকে এখনও পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ডে ভারতকে ঐতিহাসিক টেস্ট জয়ে নেতৃত্ব দিয়েছেন কোহলি। এবার দক্ষিণ আফ্রিকায়ও একই সাফল্যের অপেক্ষায় রয়েছেন তিনি।

এখন যদি ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে অধিনায়কত্ব গ্রহণ করেন, তাহলে টেস্টে দলের দায়িত্ব নিয়ে রঙিন পোশাকের ক্রিকেটে নিজের ব্যাটিংয়ে বাড়তি সময় দিতে পারবেন কোহলি। যা ৩২ বছর বয়সী কোহলিকে আগামী ৫-৬ বছর শীর্ষ পর্যায়ের ক্রিকেটে খেলতে সাহায্য করবে।  

২০১৪ সালের অস্ট্রেলিয়া সফরে টেস্ট অধিনায়কত্ব ছেড়েছিলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। তখন প্রথমবারের মতো টেস্ট অধিনায়কত্ব পান কোহলি। এরপর ২০১৭ সালে ধোনি যখন অন্য দুই ফরম্যাট থেকেও সরে যান, তখন তিন ফরম্যাটের অধিনায়ক হন কোহলি। 

এখনও পর্যন্ত ৯৫ ওয়ানডে ও ৪৫টি টোয়েন্টি ম্যাচে ভারতকে নেতৃত্ব দিয়েছেন কোহলি। যেখানে ভারত জিতেছে ৬৫ ওয়ানডে ও ২৯ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে। অন্যদিকে ১৮ টি-টোয়েন্টি ও ১০ ওয়ানডেতে ভারতের অধিনায়কত্ব করেছেন রোহিত। তার অধীনে ৮ ওয়ানডে ও ১৫ টি-টোয়েন্টি জিতেছে দল।

ট্যাগ: bdnewshour24