banglanewspaper

নিউজিল্যান্ড ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ বাতিলের পর শঙ্কা জেগেছিল ইংল্যান্ডও বুঝি বাতিল করবে সফর। সেই শঙ্কাই বাস্তবে রুপ দিল ইংলিশদের ক্রিকেট বোর্ড ইসিবি। সোমবার এক আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে তারা জানায়, পুরুষ ও নারী দুটি সিরিজই খেলবেন না তারা। ইংল্যান্ডের এমন অঙ্গীকার ভঙ্গের সিদ্ধান্তে হতাশা প্রকাশ করেছেন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান ও সাবেক ক্রিকেটার রমিজ রাজা। 

ইসিবি তাদের সফর বাতিলের ঘোষণা দেওয়া পর এক টুইটে রমিজ রাজা লিখেন, ‘ইংল্যান্ডের প্রতিশ্রুতি ভঙ্গের বিষয়টি হতাশার এবং যখন সবথেকে বেশি জরুরি তখন ক্রিকেট ভ্রাতৃত্বের সদস্যকে ব্যর্থ করলো তারা।’

বিশ্বকাপের আগে নিউজিল্যান্ডের পর ইংল্যান্ডের এমন সিদ্ধান্ত পাকিস্তান ক্রিকেটে বেশ প্রভাব পড়বে। শঙ্কা জাগছে সেখানে অন্য দলের খেলতে যাওয়া নিয়েও। তবে এমন বাজে সময় থেকে ফিরে বিশ্বের সেরা দল হয়ে উঠবে পাকিস্তান এমন বিশ্বাস সাবেক পাকিস্তানি অধিনায়কের। 

তিনি টুইটে আরো লেখেন, ‘আমরা সারভাইভ করব ইনশাআল্লাহ। পাকিস্তানকে বিশ্বের সেরা দল হিসেবে গড়ে তোলার আহ্বান জানাচ্ছি যাতে তারা কোনো অজুহাত না দিয়ে লাইন দিয়ে খেলতে আসে।’

অবশ্য ইসিবি তাদের বিবৃতি জানিয়েছেন, বোর্ডের অনিচ্ছা সত্ত্বেও তারা সফরটি বাতিল করেছে। শুধু বিশ্বকাপের আগে খেলোয়াড় ও কোচিং স্টাফদের মানসিক ও শারীরিক বিষয়টি বিবেচনায় রেখে।

বিবৃতিতে ইসিবি জানায়, ‘আমরা বুঝতে পারছি এই সিদ্ধান্তটি পিসিবির জন্য একটি উল্লেখযোগ্য হতাশার। যারা তাদের দেশে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট প্রত্যাবর্তনের জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করেছে। গত দুই মৌসুমে ইংলিশ এবং ওয়েলস ক্রিকেটের প্রতি তাদের সমর্থণ বন্ধুত্বের একটি বিশাল প্রদর্শন। পাকিস্তানের ক্রিকেটে এর (সফর বাতিলের) যে প্রভাব পড়বে তার জন্য আমরা আন্তরিকভাবে দুঃখিত। তবে আমরা ২০২২ সালের জন্য সফর পরিকল্পনার প্রতিশ্রুতির উপর দিচ্ছি।’

ট্যাগ: ইংল্যান্ড