banglanewspaper

এবছর কাঙ্ক্ষিত পরিমাণে ইলিশ মেলেনি। মৌসুম শেষের দিকে এসেও হতাশ জেলেরা। তবে এরই মধ্যে বাংলাদেশ থেকে পাঠানো পদ্মার ইলিশ পেয়ে বেজায় খুশি পশ্চিমবঙ্গের রসনাবিলাসী মানুষ। দুর্গাপূজার আগে এই ইলিশ যেন তাদের পূজার আনন্দ বাড়িয়ে দিয়েছে বহুগুণ।

পশ্চিমবঙ্গে দুই হাজার আশি মেট্রিক টন পদ্মার ইলিশ পাঠানোর কথা সোমবার ঘোষণা করেছিল বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার পেট্রাপোল সীমান্ত দিয়ে প্রথম ধাপে পাঠানো হয় ইলিশ বোঝাই ট্রাক।

বুধবার পেট্রাপোল সীমান্ত দিয়ে তিনটি ট্রাকে করে ১৬ টন ইলিশ মাছ পশ্চিমবঙ্গে যায়। পেট্রাপোলে ক্লিয়ারিং এজেন্টদের সম্পাদক কার্তিক চক্রবর্তী বলেন, বাংলাদেশে আরও কিছু গাড়ি যানজটের জেরে দাঁড়িয়ে আছে। ওই মাছও ভারতে আসবে। গতবারও ইলিশ মাছ পাঠিয়েছিল বাংলাদেশের সরকার। বাঙালি এই মাছ পেয়ে খুশি।

ইলিশ বোঝাই ট্রাক নিয়ে ভারত সীমান্তে আসা বাংলাদেশের চালক মহম্মদ নাজুম শেখ বলেন, পুজোর উপহার হিসাবে বাংলাদেশ সরকার ইলিশ পাঠিয়েছে। খুলনা থেকে এই ইলিশ আমরা নিয়ে এসেছি।

মৎস্য ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, বাংলাদেশ থেকে আসা ওই ইলিশগুলোর ওজন এক থেকে দেড় কেজির মধ্যে। দাম কেজি প্রতি অন্তত দেড় হাজার টাকা বলে জানিয়েছেন মৎস্য ব্যবসায়ীরা।

সুকান্ত বিশ্বাস নামে এক ব্যবসায়ী বলেন, আজ এখানে ১৬ টন ইলিশ এলো। বাঙালিদের পরিপূর্ণভাবে ভোজ খাওয়াতে পারব। তবে মাছের দাম আগের থেকে বাড়বে। কেজি প্রতি অন্তত দেড় হাজার টাকা দাম হবে। এই মাছ হাওড়া, শিয়ালদহ, পাতিপুকুর এমনকি শিলিগুড়িও যাবে।

সোমবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের তরফে বিজ্ঞপ্তি জারি করে বলা হয়েছিল, আসন্ন দুর্গাপূজা উপলক্ষে ভারতে ইলিশ রফতানির অনুমতি দেওয়া হয়েছে। ৫২টি বাণিজ্যিক সংস্থা ৪০ মেট্রিক টন করে ইলিশ রফতানির অনুমোদন পেয়েছে। সেই ঘোষণা অনুযায়ী বুধবার পাঠানো হয় প্রথম দফার পদ্মার ইলিশ। সূত্র: আনন্দবাজার

ট্যাগ: ইলিশ