banglanewspaper

প্রায় ২০০ কোটি টাকার প্রতারণা মামলায় এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের (ইডি) জিজ্ঞাসাবাদ এড়ালেন অভিনেত্রী জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজ। এ নিয়ে দ্বিতীয় বার তাকে প্রশ্ন করার কথা ছিল তদন্তকারী সংস্থাটির।

র‌্যানব্যাক্সি সংস্থার প্রাক্তন মালিক শিবেন্দ্র সিংহ ও মালবেন্দ্র সিংহের পরিবারকে ২০০ কোটি টাকার প্রতারণা করার অভিযোগ রয়েছে সুকেশ চন্দ্রশেখরের বিরুদ্ধে। ইডির দাবি, এই প্রতারণার মূল পান্ডা সুকেশ। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগে এফআইআর রয়েছে। সুকেশ বর্তমানে রোহিনী জেলে বন্দি।

তদন্তকারী সংস্থার সূত্রের দাবি, জেলবন্দি অবস্থাতেই জ্যাকলিনের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ ছিল সুকেশের। এই নিয়েই তদন্তকারীদের নজরে আসেন অভিনেত্রী।

প্রতারণার মামলাটিতে গত মাসেই জ্যাকলিনকে পাঁচ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করেছিলেন ইডির তদন্তকারীরা। ৩৬ বছর বয়সি বলিউডের অভিনেত্রীকে দ্বিতীয়বারের জন্য ডেকে পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু ইডির দফতরে উপস্থিত হননি তিনি। তদন্তকারীরা মনে করছেন, স্ত্রী লীনার মাধ্যমেই শ্রীলঙ্কার অভিনেত্রী জ্যাকলিনের সঙ্গে পরিচয় হয়েছিল সুকেশের।

দিল্লি পুলিশের আর্থিক অপরাধ দমন শাখা সুকেশ ও অন্য কয়েক জনের বিরুদ্ধে প্রতারণা, ষড়যন্ত্র ও ২০০ কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ এনে এফআইআর করেছে। এই মামলার সূত্রে ২৪ অগস্ট তদন্তকারীরা চেন্নাইয়ে সাড়ে বিরাশি লক্ষ টাকার মূল্যের একটি বাংলো, এক ডজন বিলাসবহুল গাড়ি ও নগদ বাজেয়াপ্ত করেছে।

ইডি সূত্রের দাবি, তদন্তে যে সমস্ত তথ্য মিলেছে, তার উপরে ভিত্তি করেই জ্যাকলিনকে জিজ্ঞাসাবাদ করার প্রয়োজন হয়ে পড়েছে।

ট্যাগ: মামলা