banglanewspaper

করোনাভাইরাসের টিকা গ্রহণের বয়সসীমা আরও কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এখন থেকে ১৮ বছর বয়সীরাও টিকার জন্য নিবন্ধন করতে পারবেন। এর আগে সাধারণ নাগরিকদের টিকা গ্রহণ ও নিবন্ধনের সর্বনিম্ন বয়সসীমা ছিল ২৫ বছর।

সোমবার (১১ অক্টোবর) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের লাইন ডিরেক্টর ও টিকা কর্মসূচির পরিচালক ডা. শামসুল হক ঢাকা টাইমসকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

শামসুল হক বলেন, এখন থেকে ১৮ বছর বয়সীরা টিকার জন্য নিবন্ধন করতে পারবে। এছাড়া টিকাদান প্রক্রিয়াটি ১২ থেকে ১৭ বছর করার চিন্তাও করছে সরকার। চলতি মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে এই প্রক্রিয়া কার্যকর হবে বলেও জানান এই কর্মকর্তা।

টিকা কর্মসূচির পরিচালক বলেন, এর আগে টিকার গ্রহণের বয়সসীমা ছিল ২৫ বছর। করোনা প্রতিরোধে সেটি কমিয়ে ১৮ বছর করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। ১৮ বছর বয়সীদের নিবন্ধন কার্যকর করতে আইসিটি বিভাগ কাজ করছে, সেটি সম্পন্ন হলেই নিবন্ধন প্রক্রিয়া শুরু হবে বলে জানান তিনি।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, সরকার স্কুলগামী শিক্ষার্থীদেরও টিকার আওতায় আনতে কাজ করছে। ১২ বছর থেকে ১৭ বছরের সব স্কুল শিক্ষার্থীকে শিগগিরই টিকার আওতায় আনা হবে। শিক্ষার্থীদের জন্য ফাইজারের টিকা দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানান স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের একাধিক কর্মকর্তা।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে সূত্রে আরও জানা গেছে, স্কুলের শিক্ষার্থীদের জন্ম নিবন্ধনের সনদের মাধ্যমে টিকা নিবন্ধনের বাধ্যবাধকতা রেখেছেন তারা। টিকার সার্বিক শৃঙ্খলা আনতেই টিকা নিবন্ধনের জন্ম সনদের বিষয়টি রাখা হচ্ছে বলে জানানো হয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে।

ট্যাগ: টিকা