banglanewspaper

বিচারিক আদালতে জামিন না পেয়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় হাইকোর্টে জামিন চেয়েছেন আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্যপদ থেকে অব্যাহতি পাওয়া ব্যবসায়ী হেলেনা জাহাঙ্গীর।

সোমবার হেলেনার আইনজীবী সৈয়দ ফজলে ইলাহী জামিন আবেদনের বিষয়টি সাংবাদিকদের জানান।

আইনজীবী বলেন, হেলেনা জাহাঙ্গীর অন্য সব মামলায় নিম্ন আদালত থেকে জামিন পেয়েছেন। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় পাননি। গত সপ্তাহে এ মামলায় জামিনের জন্য আমরা হাইকোর্টে আবেদন করেছি। মঙ্গলবার আবেদনটি বিচারপতি মো. রেজাউল হক ও বিচারপতি মো. বদরুজ্জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চে শুনানি হতে পারে। পক্ষে আদেশ পেলে তিনি মুক্তি পাবেন।

গত ৩০ জুলাই গুলশান থানায় হেলেনা জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করা হয়। এছাড়াও গুলশান থানায় মাদক, বিশেষ ক্ষমতা আইন, মিরপুর থানায় প্রতারণা মামলা এবং পল্লবী থানার টেলিযোগাযোগ আইনে মামলাও হয় তার বিরুদ্ধে।

২৯ জুলাই রাতে তাকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। পরে বন্ধ করে দেওয়া হয় তার আইপি টিভি জয়যাত্রা টেলিভিশন। ওই অভিযানের পর র‌্যাব জানায় জয়যাত্রা টেলিভিশন কোনো ধরনের বৈধ কাগজপত্র ছাড়া চলতো। অর্থ হাতিয়ে নিত সারাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ করে। প্রবাসী প্রতিনিধি নিয়োগের নামে তিনি অর্থ হাতিয়ে নিয়েছেন। ডিজিটাল মাধ্যমে মিথ্যাচার, অপপ্রচার ও বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়িয়ে রাষ্ট্রীয় গুরুত্বপূর্ণ সংস্থা ও ব্যক্তিদের সম্মানহানি করার অপচেষ্টার অভিযোগে হেলেনা জাহাঙ্গীরকে গ্রেপ্তার দেখানো হয় ৩০ জুলাই।

গত জুলাই মাসে ‘বাংলাদেশ আওয়ামী চাকরিজীবী লীগ’ নামে একটি সংগঠনের পোস্টার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। সেখানে সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি হেলেনা জাহাঙ্গীর আর সাধারণ সম্পাদক মাহবুব মনিরের নাম উল্লেখ করা হয়। এরপর আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য পদ হারান তিনি।

ট্যাগ: হাইকোর্টে