banglanewspaper

ওমান ‘এ’ দলের বিপক্ষে দুর্দান্ত ফিফটি করেছিলেন লিটন কুমার দাশ। নিয়মিত অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর অনুপস্তিতে টাইগারদের নেতৃত্ব দেওয়া এই ড্যাশিং ওপেনার শ্রীলংকার বিপক্ষে থাকলেন ব্যর্থ হয়ে। দলের অন্যতম ব্যাটিং ভরসার নাম মুশফিকুরও বের হতে পারেননি খোলশ ছেড়ে। ভালো করতে পারেননি টাইগারদের মিডল অর্ডারও।

আজ আবুধাবিতে টলারেন্স ওভালে টস জিতে ব্যাটে নেমে লংকানদের বোলিং তোপে পড়েন টাইগাররা। ওমানে এক সপ্তাহের ক্যাম্প শেষে আমিরাতে অফিসিয়াল ওয়ার্ম আপে লংকানদের ১৪৮ রানের লড়াকু টার্গেট ছোড়ে তারা। ব্যাটিং ব্যর্থতার দিনে যা একটু উজ্জল থাকেন সৌম্য সরকার। লংকানদের বিপক্ষে ১৪৭ রান তুলতে বাংলাদেশের খোয়াতে হয়েছে ৭ উইকেট।

ব্যাটিংয়ে এদিন ভালো শুরুর পর ১৪ বলে ১৬ রান করে ফিরেন অধিনায়ক লিটন। নাঈম খেলেন ১৯ বলে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে দৃষ্টিকটু ১১ রানের ইনিংস। ব্যাট হাতে রান না পাওয়া মুশফিকুর রহিমও এদিন থাকেন ব্যর্থ। দলের বিপদের মুহুর্তে ১৩ বলে ১৩ রান করে ফেরেন তিনি।

ব্যাট হাতে শ্রীলংকার বিপক্ষে রান পেয়েছেন সৌম্য সরকার। ফাইল ছবি।

চাপের মুখে ২৬ বলে ১ চার ও ২ ছয়ে ৩৪ রান করেন সৌম্য। বাংলাদেশ টিম ম্যানেজমেন্ট সহ বাংলাদেশি সমর্থকদের এটা স্বস্তির নিশ্চয়ই। সোহান করেন ১৪ বলে ১৫ রান। শেষের দিকে দলের হাল ধরা মেহেদির ১২ বলে ১৬ রানে ১৪৭ রানের সংগ্রহ পায় বাংলাদেশ। শ্রীলঙ্কার দুশমন্থ চামিরা ২৭ রান দিয়ে নিয়েছেন ৩ উইকেট।

এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ৮ ওভার শেষে ৫২ রান সংগ্রহ করেছেন লংকানরা। উইকেট হারিয়েছেন তিনটি। একটি করে উইকেট নিয়েছেন তাসকিন, মেহেদি ও সৌম্য সরকার। কুশল পেরেরাকে শুরুতেই নাঈম শেখের ক্যাচ বানিয়ে ফেরান তাসকিন।

আগামী বৃহস্পতিবার অন্য ওয়ার্মআপ ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। একই ভেন্যুতে লিটন-সোহানদের ম্যাচে প্রতিপক্ষ হিসেবে থাকবে আয়ারল্যান্ড। এই ম্যাচগুলো দিয়ে আবুধাবির কন্ডিশন ও উইকেট সম্পর্কে ধারণা পেতে উন্মুখ হয়ে আছে গোটা টিম ম্যানেজমেন্ট।

ট্যাগ: সৌম্য