banglanewspaper

এক বছরের বেশি সময় ধরে লোকচক্ষুর অন্তরালে জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা সাদিকা পারভীন পপি। অভিনয়সহ সবকিছু থেকে তিনি বিচ্ছিন্ন। তাকে না পাওয়া যাচ্ছে ফোনে, না সামাজিক মাধ্যমে। চলচ্চিত্রপাড়ায় পপির ঘনিষ্ঠরাও তার খবর জানেন না। ঢালিউডের জনপ্রিয় দম্পতি ওমর সানী-মৌসুমী সম্পর্কে পপির বোন-দুলাভাই। তারাও জানেন না অভিনেত্রী কোথায় আছেন, কেমন আছেন।

তবে পপি-ঘনিষ্ঠ জনপ্রিয় এক চিত্রনায়ক নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানিয়েছেন, অভিনেত্রী নাকি বর্তমানে গাজীপুরে নিজের বাগানবাড়িতে বসবাস করছেন। কিন্তু পপি বিয়ে করেছেন কিনা, তা পরিষ্কার করেননি ওই নায়ক। তার দাবি, শিগগিরই আড়াল ভেঙে সবার সামনে হাজির হবেন পপি। তখনই তার অন্তরাল জীবনের বিষয় নিয়ে মুখ খুলবেন। সেই পর্যন্ত সবাইকে অপেক্ষায় থাকতে বলেছেন তিনি।

কয়েক মাস আগে পরিচালক ও অভিনেতা রাজু আলিম খুঁজছিলেন পপিকে। তার ‘ভালোবাসার প্রজাপতি’ নামে একটি ছবির কিছু অংশের কাজ বাকি রেখে লাপাত্তা হয়ে গেছেন নায়িকা। অনেক খুঁজে, নানাভাবে যোগাযোগ করেও পপির দেখা পাননি রাজু আলিম।

এই পরিচালক সে সময় জানিয়েছিলেন, ঢাকার কোনো এক শিল্পপতিকে গোপনে বিয়ে করে সংসার করছেন পপি। থাকছেন ওই শিল্পপতির দেওয়া ফ্ল্যাটে। কিন্তু ওই শিল্পপতির নাম কী বা নায়িকা ঢাকার কোথায় থাকেন, সে সম্পর্কে রাজু আলিম কিছু জানাতে পারেননি।

এদিকে, সম্প্রতি পপির খোঁজে নামেন ওমর মালিক নামে এক প্রযোজক। তিনি গণমাধ্যমের কাছে দাবি করেন, ২০২০ সালের ২৩ অক্টোবর ‘ধোঁয়া’ নামে একটি ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন পপি। এক লাখ টাকা সাইনিং মানিও নিয়েছিলেন। সে সময় এই প্রযোজককে পপি অনুরোধ করেছিলেন, ছবির কাজ শুরু হওয়ার আগে কোনো কিছু প্রকাশ না করতে।

প্রযোজক ওমর মালিক জানান, চলতি বছরের মার্চে তার ‘ধোঁয়া’ ছবিটির কাজ শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তার আগেই পপি লাপাত্তা। তিনি ছবিটি করবেন কি না জানাননি। যদি না করেন তবে তো সাইনিং মানি ফেরত দেওয়ার কথা। সেটাও দেননি। মোটকথা, ‘ধোঁয়া’ ছবিটি নিয়ে পপির সিদ্ধান্ত কী, তা কোনোভাবেই জানতে পারছেন না প্রযোজক ওমর মালিক।

এখন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই নায়ক বলছেন, পপি নাকি গাজীপুরে তার বাগানবাড়িতে রয়েছেন। আসলেই কি তাই? নেই কোনো সুনির্দিষ্ট সূত্র। তবে নায়িকা কোথায় আছেন, কেমন আছেন, তা কেবল জানা যাবে তিনি আড়াল ভেঙে প্রকাশ্যে আসলেই। সেই দিনের অপেক্ষায় পপির ভক্তরা।

ট্যাগ: পপি