banglanewspaper

বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে হারের ক্ষত সারাতে বাংলাদেশ সফরে সাফল্য খুব প্রয়োজন ছিল পাকিস্তানের। টি-টোয়েন্টির পর টেস্ট সিরিজেও স্বাগতিকদের হোয়াইটওয়াশ করে সেই সাফল্যের ষোলোআনাই বাগিয়ে নিয়েছে বাবর আজমের দল। সফল সিরিজ শেষে দেশে ফেরার আগে বাবর ধন্যবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশকে।
 
বাংলাদেশিদের পাকিস্তান সমর্থন নিয়ে অনেক কথা হয়েছে সিরিজজুড়ে। বাবরদের জন্য অবশ্য এটি ছিল স্বস্তির। দেশের বাইরে খেলতে গিয়ে স্বাগতিক দেশের মানুষের সমর্থন যে কারও জন্যই আনন্দের। বাংলাদেশ ছাড়ার আগে বাবর ধন্যবাদ জানিয়েছেন সমর্থকদের।
 
তিনি বলেন, ‘টি-টোয়েন্টি ও টেস্টে দর্শকরা আমাদের যেভাবে সমর্থন করেছে তা খুবই উপভোগ্য ছিল। এখানে আগেও ক্রিকেট খেলেছি। এখানকার লোকজন আমাদের খুব ভালোবাসে, সমর্থন করে। এজন্য সবাইকে ধন্যবাদ।’

ঢাকা টেস্ট জয়ে বল হাতেও অবদান রেখেছেন বাবর। এই ম্যাচেই তিনি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রথমবারের মত বোলিং করেন। দ্বিতীয় ইনিংসে মেহেদী হাসান মিরাজকে এলবিডব্লিউ করে পাকিস্তানের মুঠোয় জয় ভরতে সাহায্য করেন।

বাবর জানালেন, বোলিংয়ের এই অভিজ্ঞতা মোটেও নতুন নয় তার কাছে, ‘আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এবারই প্রথম বোলিং করলাম। কিন্তু প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট, অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেটে নিয়মিত বোলিং করি। নেটেও আমাদের ব্যাটারদের নিয়মিত বোলিং করি।’

সর্বোপরি দলের হার না মানা মানসিকতা মুগ্ধ করেছে বাবরকে, অধিনায়ক হিসেবে করেছে গর্বিত। সাফল্যের রহস্য জানিয়ে বাবর বলেন, ‘সবাইকে তাদের দায়িত্বটা পরিস্কার করে বুঝিয়ে দেওয়া হয়, আত্মবিশ্বাস দেওয়া হয়। সবাই যেন চেষ্টা করে সেই তাড়না থাকে। যেভাবে দলের সবাই বিশ্বকাপে, টি-টোয়েন্টি সিরিজ এবং টেস্ট সিরিজে খেলেছে তা আমাদের এগিয়ে নেবে। অধিনায়ক হিসেবে আমি গর্বিত, আমার কাছে এত ভালো একটা দল আছে।’
 

ট্যাগ: পাকিস্তান

খেলা
​৪৬৫ রানে থামল বাংলাদেশ

banglanewspaper

চট্টগ্রাম টেস্ট ড্র হবে না নাকি ফলাফল আসবে সেটা সময়ের হাতে তোলা থাক। তবে বাংলাদেশের মন্থর ব্যাটিংয়ে আপাতত ড্রয়ের দিকেই নিয়ে যাচ্ছে এই ম্যাচকে। তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিমের শতকের পরও শ্রীলঙ্কাকে প্রথম ইনিংসে ৬৮ রানের লিড দিয়েছে স্বাগতিক দল।

চট্টগ্রামে শ্রীলঙ্কার দেয়া প্রথম ইনিংসে ৩৯৭ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে ওপেনিং জুটিতে রেকর্ড করে বাংলাদেশ। শুরুতে তামিম ইকবালের অর্ধশতক, এরপর মাহমুদুল হাসান জয়ের। দুই ওপেনারের ব্যাটে শুরুটা হয় দুর্দান্ত।

দ্বিতীয় দিনের শেষ সেশনে ব্যাট করতে নামা দুই টাইগার ওপেনার তৃতীয় দিনেও খেলে দেন প্রথম সেশন। দুই ওপেনারের জুটি ভাঙে ১৬২ রান তুলে জয়ের ৫৮ রানে বিদায়ে।

ট্যাগ:

খেলা
তিন বছর পর তামিমের সেঞ্চুরি

banglanewspaper

টেস্টে ব্যাট হাতে দারুণ ধারাবাহিক তামিম ইকবাল কেবল সেঞ্চুরির দেখাটাই পাচ্ছিলেন না। চট্টগ্রাম টেস্টে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সেই আক্ষেপে প্রলেপ দিলেন বাঁহাতি ওপেনার। দীর্ঘ ৩৮ মাসের বেশি সময় পর সাদা পোশাক গায়ে চাপিয়ে তিন অঙ্কের স্বাদ পেলেন তিনি। এটি তার টেস্টে ১০ম সেঞ্চুরি। এই ফরম্যাটে লঙ্কানদের বিপক্ষে এটি তার প্রথম শতক। ১৬২ বলে তামিম পূরণ করেন শতক। এই ইনিংসে তিনি হাঁকিয়েছেন ১২টি চার।

বাংলাদেশের সংগ্রহ ১ উইকেটে ১৬৮ রান। ৫৮ রানের ইনিংস খেলে সাজঘরে ফিরে গেছেন মাহমুদুল হাসান জয়। শ্রীলঙ্কার চেয়ে এখনো ২২৯ রানে পিছিয়ে আছে বাংলাদেশ।

এর আগে, গতকাল টেস্টের দ্বিতীয় দিনে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজের ১৯৯ রানে ভর করে প্রথম ইনিংসে ৩৯৭ রান সংগ্রহ করে শ্রীলঙ্কা। তামিম টেস্টে সবশেষ শতকটি করেছিলেন ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারিতে, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে। এর মাঝে কেটে গেছে ১৬ ইনিংস। যেখানে ৬টি অর্ধশতক হাঁকালেও ম্যাজিক ফিগারের দেখা পাচ্ছিলেন না তিনি। ৭৩ বলে ফিফটি করলেও পরের পঞ্চাশ করতে লেগেছে ৮৮ বল। সাকুল্য তামিমের এই শতক এসেছে ১৬২ বলে।

ট্যাগ:

খেলা
​ভারতের বিপক্ষে দ. আফ্রিকার দল ঘোষণা

banglanewspaper

ভারতের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য দল ঘোষণা করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। দক্ষিণ আফ্রিকার ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ রান করে ডাক পেয়েছেন অনভিষিক্ত ট্রিস্টান স্টাবস।

এছাড়া আইপিএলের কারণে বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ ‘না’ বলা ক্রিকেটাররা ফিরেছেন টি-টোয়েন্টি দলে।আইপিএল শেষে আগামী ৯ জুন শুরু হবে স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা ও সফরকারী ভারতের মধ্যকার পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। সিরিজের বাকি চারটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে ১২, ১৪, ১৭ ও ১৯ জুন। 

এই সিরিজ দিয়ে বিসিসিআইয়ের জৈব সুরক্ষা বলয়ের রীতিনীতি থেকে বের হয়ে আসার কথা রয়েছে।

দক্ষিণ আফ্রিকা স্কোয়াড 
টেম্বা বাভুমা (অধিনায়ক), কুইন্টন ডি কক, রিজা হ্যানড্রিক্স, হেইনরিখ ক্লাসেন, কেশব মহারাজ, অ্যাইডেন মারক্রাম, ডেভিড মিলার, লুঙ্গি এনগিডি, অ্যানরিখ নরকিয়া, ওয়েন পারনেল, ডোয়াইন প্রিটোরিয়াস, কাগিসো রাবাদা, তাবরাইজ শামসি, ট্রিস্টান স্টাবস, রাসি ভন ডার ডুসেন ও মার্কো জানসেন।

ট্যাগ:

খেলা
ম্যাথিউজের আক্ষেপে অলআউট শ্রীলঙ্কা

banglanewspaper

অবশেষে অলআউট শ্রীলঙ্কা। এঞ্জেলো ম্যাথিউজের তীব্র প্রতিরোধ থামিয়ে বাংলাদেশকে স্বস্তি এনে দিলেন নাঈম হাসান। মেহেদি হাসান মিরাজ অফস্পিনার কোটায় জায়গা পাকা করে ফেলায় টিম কম্বিনেশনে সুযোগ মেলেনি নাঈমের। সেই মিরাজের চোটেই ১৫ মাস পর দলে ফিরলেন। আর ফিরেই পেলেন ৫ উইকেটের দেখা। চট্টগ্রাম টেস্টের দ্বিতীয় দিনে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে এই ফাইফার ছুঁয়েছেন নাঈম। সবমিলিয়ে নিয়েছেন ৬ উইকেট। প্রথম দিন ২ উইকেট নেওয়ার পর আজ নিয়েছেন আরও ৪টি।

তার ক্যারিয়ারটা শুরুই হয়েছিল ৫ উইকেট দিয়ে। ২০১৮ সালের নভেম্বরে চট্টগ্রামে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে নিজের অভিষেক টেস্টের প্রথম ইনিংসে ফাইফার তুলে নিয়েছিলেন নাইম হাসান। এরপর আরও একবার ৫ উইকেট পেয়েছেন ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারিতে, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মিরপুরে। ৭ টেস্টের ক্যারিয়ারে মোট ২৫ উইকেট শিকার করেন নাইম।

৪ উইকেটে ২৫৮ রান নিয়ে চট্টগ্রাম টেস্টের দ্বিতীয় দিন শুরু করা শ্রীলঙ্কা প্রথম সেশন শেষ করে ৬ উইকেটে ৩২৭ রান নিয়ে। প্রথম সেশনে দীনেশ চান্দিমালকে (৬৬) হারালেও অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজ ‘জীবন পাওয়ার’ সুবিধা কাজে লাগিয়ে পৌঁছে যান ডাবল সেঞ্চুরির কাছাকাছি। তার আগে বিশ্ব ফার্নান্দোর প্রতিরোধ গড়া ব্যাটিংয়ে ৮ উইকেটে ৩৭৫ রান নিয়ে দ্বিতীয় সেশন শেষ করে লঙ্কানরা।

তবে মাত্র ১ রানের জন্য ম্যাথিউজ পাননি ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ডাবল সেঞ্চুরির দেখা। শরিফুল ইসলামের বাউন্সারে মাথায় কিঞ্চিৎ আঘাত পাওয়া বিশ্ব তৃতীয় সেশনের শুরু ছিলেন রিটায়ার্ড হার্ট। আসিথা ফার্নান্দোকে নাঈম বোল্ড করলে আবারও ক্রিজে নামেন বিশ্ব। শেষপর্যন্ত ৮৪ বলে ১৭ রান করে অপরাজিত থাকেন দারুণ দৃঢ়তা দেখানো এই টেল এন্ডার।

৩৮৫তম বলে সাকিবের দারুণ এক ক্যাচে পরিণত হয়ে বিদায় নেন ১৯৯ রান করা ম্যাথিউজ, শ্রীলঙ্কা অলআউট হয় ৩৯৭ রানে। ম্যাথিউজের ইনিংসে ছিল ১৯টি চার ও ১টি ছক্কা। ম্যাথিউজকে ফিরিয়ে নাঈম শিকার করেন ৬টি উইকেট। এছাড়া সাকিব আল হাসান শিকার করেন তিনটি উইকেট, তাইজুল একটি।

ট্যাগ:

খেলা
স্ত্রী আনুশকার চেয়েও সতীর্থকে বেশি গুরুত্ব দিতেন কোহলি’

banglanewspaper

টানা সাত বছর ভারতীয় দলের দায়িত্ব পালন করা কোহলি নিজের অধিনায়কত্বের সময় দলের সকল ক্রিকেটারের মধ্যে ব্যাপক পরিবর্তন নিয়ে আসেন। বিশেষ করে ফিটনেসের ক্ষেত্রে বলা চলে বিপ্লব ঘটিয়েছেন কোহলি। বিশেষ করে পেসারদের জন্য আলাদা রকম সচেতন ছিলেন কোহলি। কোনো সফরে যাওয়ার সময় নিজের বিজনেস ক্লাসের সিট ছেড়ে দিয়ে পেসারদের বসতে দিতেন কিং কোহলি। এক্ষেত্রে নিজের স্ত্রী আনুশকার চেয়েও সতীর্থদের ক্ষেত্রে বেশি গুরুত্ব দিতেন কোহলি।

ভারতীয় ক্রিকেট দলের যেকোনো সফরে কোচ ও অধিনায়কের জন্য বিমানের দুটি বিজনেস ক্লাস সিট সংরক্ষিত থাকে। কোচ তার নির্ধারিত সিটে বসলেও কোহলি সব সময় দলের অন্য ক্রিকেটারদের সঙ্গে ইকোনমি ক্লাসে করেই যাতায়াত করতেন। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম স্পোর্টসকিডকে এমন তথ্য জানিয়েছেন দেশটির সাবেক ক্রিকেটার বিবেক রাজদান। তিনি জানিয়েছেন, নিজের স্ত্রী আনুশকা শর্মার চেয়েও পেসারদের বেশি গুরুত্ব দিতেন কোহলি।

রাজদান স্পোর্টসকিডকে বলেন, ‘কোচ ছাড়া বিজনেস ক্লাসের অন্য সিটে বসতো একজন বোলার ইশান্ত শর্মা, জসপ্রিত বুমরাহ, মোহাম্মদ শামি, কখনো রবিচন্দ্রন অশ্বিন অথবা অন্য কেউ। বোলারদের তিন চার ঘণ্টার যাত্রায় বাড়তি আরাম দিতেই এমনটা করতেন কোহলি।’

২০১৯ সালের একটি ঘটনা উল্লেখ করে রাজদান আরও যোগ করেন, ‘২০১৯ ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে বিরাট ও আনুশকা শর্মা একসঙ্গে ইকোনমি ক্লাসে চড়েছেন। বিজনেস ক্লাস সিটে আনুশকাকে বসানোর জন্য অনুরোধও করেননি কোহলি।’

২০১৪ সালে অস্ট্রেলিয়া সফরে টেস্ট সিরিজের মাঝপথে হুট করেই ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেন মাহেন্দ্র সিং ধোনি। তখনই আচমকা প্রথমবারের মতো ভারতীয় দলের নেতৃত্ব পান এই ক্রিকেটার। এরপর সময়ের সঙ্গে ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়কত্বও পান এই ক্রিকেটার।

যদিও গত বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর এই ফরম্যাটের দায়িত্ব ছেড়ে দিয়ে নেতৃত্ব থেকে সরে দাঁড়ান কোহলি। এরপর ওয়ানডে এবং সর্বশেষ চলতি বছর টেস্টের অধিনায়কত্ব থেকেও সরে দাঁড়ান কোহলি। তার জায়গায় বর্তমানে ভারতীয় দলকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন রোহিত শর্মা।

ট্যাগ: