banglanewspaper

মধ্যপ্রাচ্যের বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ সৌদি আরব জ্বালানি নির্ভর অর্থ ব্যবস্থা থেকে বের হতে ভিশন ২০৩০ ঘোষণা করা হয়েছে। দেশটির সামাজিক ও অর্থনীতি সংস্কারের এই কর্মযজ্ঞে প্রতিদিনই যুক্ত হচ্ছেন নারীরা। যে বিষয়টিকে সৌদি আরবের উন্নয়নের মূল চালিকাশক্তি হিসেবে দেখা হচ্ছে। খবর আরব নিউজ।

নতুন ভিশন ঘোষণার পর কর্মক্ষেত্রে নারীর অংশগ্রহণ বেড়ে হয়েছে ৩৩ শতাংশ। ২০১৬ সালেও যা ছিল মাত্র ১৯ শতাংশ। নিউইয়র্কভিত্তিক বৈশ্বিক মানবসম্পদ-বিষয়ক পরামর্শক প্রতিষ্ঠান মারসারের করা টোটাল রিমিউনারেশন সার্ভে ২০২১-এ এসব তথ্য উঠে এসেছে। 

মারসারের সৌদি আরবের অংশীদার নাজলা নাজম বলেন, এ সমীক্ষার মাধ্যমে সৌদি আরবের কর্মীদের সম্পর্কে বেশ ভালো ধারণা পাওয়া গিয়েছে। পাশাপাশি কোন খাত কেমন সুবিধা দেয়, কী পরিমাণ ক্ষতিপূরণ দেয় তাও পরিষ্কার হয়েছে। এসব তথ্য পরবর্তী সময়ে গ্রাহকসেবা ও সংগঠনের সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

ঐতিহ্যগতভাবে সৌদি আরবের নারী কর্মশক্তির সবচেয়ে বড় অংশ সরকারি, স্বাস্থ্যসেবা ও শিক্ষা খাতে কর্মরত। তবে সমীক্ষার বরাত দিয়ে নাজলা নাজম বলেন, সেসব দিন বদলাচ্ছে। নারীরা এখন তথ্যপ্রযুক্তি ও আর্টিফিশিয়াল ইনটেলিজেন্স সম্পর্কিত পেশাগুলো বেছে নিচ্ছেন। আবার ডাটা সায়েন্টিস্ট, সাইবার সিকিউরিটি, এভিয়েশন, পর্যটন ও বিনোদন খাতেও নারীর অংশগ্রহণ বাড়ছে।

এরই মধ্যে সৌদি আরবে বেশ কয়েকজন উচ্চপদস্থ নারী রয়েছেন, যারা নিজ নিজ ক্ষেত্রে দারুণ সুপরিচিত। এদের মধ্যে রয়েছেন সৌদি ব্রিটিশ ব্যাংকের চেয়ারপারসন লুবনা ওলায়ান, সৌদি স্টক এক্সচেঞ্জ তাডাওয়ালের চেয়ারপারসন সারাহ আল সুহাইমি ও সাম্বা ফাইন্যান্সিয়াল গ্রুপের সাবেক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রানিয়া নাশার।

দেশটির আফরাহ আল ওথমান নামে এক নারী সম্প্রতি বেশ আলোচনায় এসেছেন। কারণ প্রথম আরব নারী হিসেবে তিনি মনুষ্যবিহীন সাবমেরিন গভীর সমুদ্রে পরিচালনা করেছেন। অন্যদিকে, আরো ৩০ নারীকে মক্কা থেকে মদিনার পথে উচ্চগতির ট্রেন চালানোর জন্য প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে।

সব মিলিয়ে মারসারের এ সমীক্ষায় সৌদি আরবের মোট কর্মশক্তিতে নারীদের অবস্থানের বিষয়টি বেশ ভালোভাবে উঠে এসেছে। সেখানে দেখা যায়, মানবসম্পদ বিভাগে নারীদের বেশ শক্তিশালী অংশগ্রহণ রয়েছে। এ ছাড়া, প্রশাসনিক ও নির্বাহী পদগুলোয় রয়েছেন ১৭ শতাংশ নারী। আইন, বিপণন ও বিভিন্ন খাতের প্রশাসনিক পদগুলোতেও যুক্ত হচ্ছে নারীদের বড় একটি অংশ। এর বাইরে সম্প্রতি কারিগরি খাতগুলোতেও নারীদের অংশগ্রহণ বাড়ছে। যদিও তথ্যপ্রযুক্তি খাতে এখনো কেবল ৪ শতাংশ নারী কাজ করছেন। তবে এ সংখ্যা বাড়তে শুরু করেছে।

নাজলা নাজম বলেন, কোন খাতে কত শতাংশ নারী কাজ করছেন সেটি আমাদের জন্য বিবেচ্য নয়। আমরা দেখাতে চেয়েছি যে সৌদি আরবের কর্মক্ষেত্রে নারীদের অংশগ্রহণ কী পরিমাণে বাড়ছে। জরিপে উঠে এসেছে যে দ্রুত সময়ের মধ্যে এ হার বেশ উল্লেখযোগ্য, যার অর্থ হলো নারীর জন্য কর্মক্ষেত্রের দুয়ার উন্মুক্ত হচ্ছে। নারী তার পূর্ণ সক্ষমতা কাজে লাগানোর সুযোগ পাচ্ছেন।

সমীক্ষায় দেখা গেছে, দেশটির অসংখ্য নারী নিজের ব্যবসা শুরু করছেন। ২০১৫ সালের তুলনায় নারী ব্যবসায়ীর নিবন্ধনের হার ১১৫ শতাংশ বেড়েছে। এর মধ্যে রয়েছে ঘরে বসে খাবার সরবরাহ থেকে শুরু করে কাপড় সেলাইয়ের মতো ব্যবসাও, যার মাধ্যমে কর্মসংস্থান হচ্ছে হাজারো কর্মীর। অবশ্য সৌদি আরবের নারীদের জন্য ব্যবসা নতুন নয়। আগে চাকরির সুযোগ না পেয়েও বহু নারী ব্যবসা করতেন। কিন্তু এখন তাদের সহায়তা করার জন্য, সমর্থন করার জন্য নতুন নতুন প্লাটফর্ম বা সুযোগ তৈরি হয়েছে। ফলে এখন অনেক বেশি নারী নিজের ব্যবসা শুরু করার বিষয়ে আগ্রহী হয়ে উঠছেন।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, নারীরা যেহেতু মোট জনসংখ্যার অর্ধেক, তাই অর্থনীতিতে তাদের অংশগ্রহণ ভিশন ২০৩০ অর্জনের গতি ত্বরান্বিত করবে, যা দেশের সার্বিক ভবিষ্যতের জন্যও মঙ্গলজনক।
 

ট্যাগ: সৌদি

আন্তর্জাতিক
পরমাণু আলোচনায় সম্মত ইরান

banglanewspaper

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আবারও পরমাণু আলোচনায় সম্মত হয়েছে ইরান।

শনিবার (২৫ জুন) আল জাজিরা এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে গত মার্চ থেকে এই আলোচনা স্থগিত রয়েছে। তবে ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্রনীতিবিষয়ক প্রধান জোসেফ বোরেলের তেহরান সফরে এ ব্যাপারে ইতিবাচক অগ্রগতির খবর এলো।

জানা গেছে, ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেইন আমির আবদুল্লাহিয়ান এবং জোসেফ বোরেল এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে নতুন করে আলোচনা শুরুর ঘোষণা দেন। এর মাধ্যমে ইইউয়ের মধ্যস্থতায় যুক্তরাষ্ট্র ও ইরান আবারও পরমাণু কর্মসূচি নিয়ে আলোচনা শুরু করতে যাচ্ছে।

এর আগে, গত ২৪ মে জোসেফ বোরেল তেহরান পৌঁছান। এরপর তারা ইরানের পক্ষে পরমাণু আলোচনার প্রধান আলোচক আলী বাঘেরি কানি এবং দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির আব্দুল্লাহিয়ানের সঙ্গে দেখা করেন। সূত্র : আলজাজিরা

ট্যাগ:

আন্তর্জাতিক
গুজরাট দাঙ্গা : মোদিকে নির্দোষ ঘোষণার রায় বহাল

banglanewspaper

গুজরাট দাঙ্গার মামলায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে নির্দোষ ঘোষণার রায় বহাল রেখেছে দেশটির সুপ্রিম কোর্ট।

শুক্রবার (২৪ জুন) ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ওই দাঙ্গায় নিহত কংগ্রেস নেতা এহেসান জাফরির স্ত্রী জাকিয়া মোদিকে অব্যাহতি দেওয়া এক রায়কে চ্যালেঞ্জ করে আবেদন করলে সুপ্রিম কোর্ট তা খারিজ করে দেয়। এতে নির্দোষই থাকলেন মোদি।

জানা গেছে, ২০০২ সালে গুজরাটে সাম্প্রদায়িক ওই দাঙ্গাকে ভারতের অন্যতম ভয়াবহ দাঙ্গা বলা হয়ে থাকে। দাঙ্গায় এক হাজারের বেশি মানুষ নিহত হয়, যাদের অধিকাংশই মুসলমান। এহসান জাফরি তাদের একজন। যিনি একজন প্রখ্যাত মুসলিম রাজনীতিবিদ এবং কংগ্রেস সংসদ সদস্য ছিলেন। দাঙ্গাকারীরা তাকে কুপিয়ে ও পুড়িয়ে হত্যা করে। সে সময় ওই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন নরেন্দ্র মোদি। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, মুসলিমবিরোধী দাঙ্গা থামাতে সে সময় মোদি কোনো পদক্ষেপই নেননি।

এরপর এ ঘটনায় বিশেষ তদন্তকারী দল (এসআইটি) ২০১২ সালের ফেব্রুয়ারিতে একটি রিপোর্ট জমা দেয়, যেখানে ‘কোনো বিচারযোগ্য প্রমাণ’ না থাকায় মোদিসহ অন্য ৬৩ জনকেও অব্যাহতি দেওয়া হয়।

সে সময় জাকিয়া জাফরি জানিয়েছিলেন, এসআইটি তদন্ত করেনি, অভিযুক্তদের রক্ষার চেষ্টা করেছিল। এই দাঙ্গায় ‘বৃহত্তর ষড়যন্ত্র’ রয়েছে। পরে নতুন তদন্ত চেয়ে আবেদন করেন জাকিয়া জাফরি। সূত্র : এনডিটিভি, ওয়ান ইন্ডিয়া

ট্যাগ:

আন্তর্জাতিক
ইসরায়েলি সেনাদের গুলিতেই নিহত হয়েছেন শিরিন : জাতিসংঘ

banglanewspaper

ইসরায়েলি সেনাদের গুলিতেই আল-জাজিরার সাংবাদিক শিরিন আবু আকলেহ নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ।

শুক্রবার (২৪ জুন) জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনার অফিসের মুখপাত্র রাভিনা শামদাসানি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, সাংবাদিক শিরিনকে হত্যা এবং তার সহকর্মী আলী সামৌদিকে আহত করা গুলি ইসরায়েলি সেনাদের কাছ থেকে এসেছে। সশস্ত্র ফিলিস্তিনিরাদের গুলিতে তার মৃত্যু হয়নি।

উল্লেখ্য, গত ১১ মে দখলকৃত পশ্চিম তীরের জেনিন শহরে অভিযান চালায় ইসরায়েলি সেনারা। সংবাদ সংগ্রহের জন্য ঘটনাস্থলে ছিলেন শিরিন আবু আকলেহ। ওই সময় একটি গুলি সরাসরি তার মাথায় লাগে। এ সময় তাকে হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও ঘটনাস্থলে থাকা অন্য সাংবাদিকেরা জানান, ইসরায়েলের এক সেনা শিরিনের মাথায় গুলি করলে তার মৃত্যু হয়। তবে ইসরাইলের সেনারা তখন বলেছিল, জেনিন অভিযানের সময়ে সশস্ত্র ফিলিস্তিনিরা নির্বিচারে গুলি চালাচ্ছিল, তাদের গুলিতেই হয়তো শিরিনের মৃত্যু হয়। সূত্র : আলজাজিরা

ট্যাগ:

আন্তর্জাতিক
বিয়ের অনুষ্ঠানে বরের গুলিতে বন্ধু নিহত (ভিডিও)

banglanewspaper

ভারতে এক বিয়ের অনুষ্ঠানে বরের গুলিতে তারই এক বন্ধু নিহত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রতিবেদনের তথ্যমতে, দেশেটির উত্তর প্রদেশে সোনভদ্র জেলার ব্রাহ্মনগর এলাকায় বিয়ের অনুষ্ঠান উদযাপনের অংশ হিসেবে পিস্তল উঁচিয়ে গুলি করেন বর মনীশ মাধেশিয়া। এ সময় তার বন্ধু বাবু লাল যাদব গুলিবিদ্ধ হোন। তাকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে গেলেও বাঁচানো যায়নি।

পুলিশ জানিয়েছে, এ ঘটনায় নিহতের পরিবার একটি এফআইআর নথিভুক্ত করেছে। অভিযুক্ত মনীশ মাধেশিয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বন্দুকটিও জব্দ করা হয়েছে। সূত্র: এনডিটিভি

ভিডিওটি দেখতে ক্লিক করুন...

ট্যাগ:

আন্তর্জাতিক
যুক্তরাষ্ট্রে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে ৬ জন নিহত

banglanewspaper

যুক্তরাষ্ট্রে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে ছয়জন নিহত হয়েছে। স্থানীয় সময় বুধবার সন্ধ্যায় দেশটির দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য ভার্জিনিয়ার লোগান কাউন্টিতে এ ঘটনা ঘটে।

ফেডারেল এভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের (এফএএ) একটি বিবৃতিতে বলা হয়, বেল ইউএইচ-ওয়ানবি হেলিকপ্টারটি বিকেল ৫টার দিকে বিধ্বস্ত হয়।

লোগান কাউন্টি অফিস অব ইমার্জেন্সি ম্যানেজমেন্টের ডেপুটি ডিরেক্টর সোনিয়া পোর্টার সিএনএনকে বলেন, হেইউ নামে পরিচিত হেলিকপ্টারটি একটি গ্রামের সড়কে বিধ্বস্ত হয়েছে।

লোগান ইমার্জেন্সি ম্যানেজমেন্ট অথরিটি অপারেশনের প্রধান রে ব্রায়ান্ট বলেন, ভিয়েতনাম যুদ্ধের সময়কার হেলিকপ্টারটি লোগান কাউন্টি বিমানবন্দরের বাইরে ছিল এবং পর্যটকদের জন্য ব্যবহার করা হচ্ছিল।

ব্রায়ান্ট বলেন, দমকল কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে হেলিকপ্টারটিতে আগুন জ্বলতে দেখেন এবং তারা পরে আগুন নিভিয়ে ফেলেন।

দুর্ঘটনার পর মালিকদের মধ্যে একজন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন বলে জানান তিনি।

দুর্ঘটনাস্থল থেকে প্রায় এক মাইল দূরে বসবাসকারী ববি চাইল্ডস ৯১১ জরুরি সহায়তা চেয়ে কল করেন। তিনি ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়ে দেখেন হেলিকপ্টারটির আগুন নিয়ন্ত্রণের বাইরে যেতে শুরু করেছে। একজনকে হেলিকপ্টারটিতে আটকা থাকতে দেখেন।

তিনি বলেন, আমি যত দ্রুত যেতে পারি দৌড়ে হেলিকপ্টারটির কাছে পৌঁছাই। কিন্তু আগুন অত্যন্ত তীব্র ছিল এবং ওই লোকটি সেখান থেকে বের হতে পারেনি।

বুধবার রাতে একটি টুইট বার্তায় গভর্নর জিম জাস্টিস বলেন, আমি এই মর্মান্তিক হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় নিহতদের পরিবারের জন্য প্রার্থনা করছি।

লোগান কাউন্টি কেনটাকি সীমান্তের কাছে অবস্থিত। এফএএ এবং ন্যাশনাল ট্রান্সপোর্টেশন সেফটি বোর্ড দুর্ঘটনার যৌথভাবে তদন্ত করবে।

ট্যাগ: