banglanewspaper

পোস্টারে পোস্টারে এলাকা সয়লাব। কোনো পোস্টারে লেখা, ‘বসিরহাটের এমপি নুসরাত জাহান নিখোঁজ, সন্ধান চাই।’ নিচে লেখা, ‘প্রতারিত জনগণ’। কোনো পোস্টারে আবার লেখা হয়েছে, ‘বসিরহাটের এমপি নুসরত জাহান নিখোঁজ, সন্ধান চাই।’ 

আশ্চর্যের হলেও বেশির ভাগ পোস্টারের নিচে লেখা, ‘প্রচারে তৃণমূল’। বসিরহাটের চাঁপাতলার বিস্তীর্ণ এলাকায় দলীয় সংসদ সদস্যের নামে এমন পোস্টার দেখতে পেয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের নেতারা তড়িঘড়ি তা ছিঁড়ে ফেলার কৌশল নেয়। তবে দলের একাংশ মেনে নিয়েছে, দলীয় এমপিকে এলাকায় দেখতে না পাওয়ার কারণেই এই পোস্টার পড়েছে। কে বা কারা ওই পোস্টার লাগিয়েছেন, তা নিয়ে কোনো মন্তব্য করেননি স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব। 

গ্রামবাসীদের দাবি, ভোটের পর থেকে দেখা মেলেনি নুসরাতের। তাই এই পোস্টারে তাদের সমর্থন রয়েছে। একই সুর বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোরও।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রাতের অন্ধকারে এই পোস্টার দেওয়ালে সাঁটিয়েছে কেউ। তবে বিষয়টি তারা নৈতিকভাবে সমর্থন করছেন বলে জানিয়েছেন গ্রামবাসীদের একাংশ। 

এলাকার বাসিন্দা সামছুর নাহার বিবি বলেন, ‘পোস্টারে যে কথা লেখা আছে তা ঠিক। ভোট দেওয়ার পর থেকে তাকে আর আমরা গ্রামে দেখতে পাইনি।’ তার মতো আরও অনেকেরই একই অভিযোগ।

পোস্টারের খবর পাওয়া মাত্র এলাকা ঘুরে সব পোস্টার ছিঁড়ে ফেলার নির্দেশ দেন চাঁপাতলা গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূল প্রধান হুমায়ুন রেজা চৌধুরী। তার গলাতেও পোস্টারের বক্তব্যকে সমর্থনের সুর শোনা যায়। তিনি বলেন, ‘ভোটের পর থেকেসংসদ সদস্য নুসরাতকে সাধারণ মানুষ কাছ থেকে পায়নি। সে কারণে ক্ষোভ তৈরি হয়েছে। এই পোস্টার সেই ক্ষোভেরই বহিঃপ্রকাশ।’ এলাকায় না আসা নিয়ে দলের কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে যে ক্ষোভ রয়েছে তা-ও তিনি স্বীকার করে নেন।

বিজেপি যদিও বিষয়টিকে কটাক্ষ করতে ছাড়েনি। পোস্টার প্রসঙ্গে বিজেপির বসিরহাট সাংগঠনিক জেলার যুব মোর্চার সভাপতি পলাশ সরকার বলেন, ‘সাংসদ টিকটক আর সিনেমার পর্দায় রয়েছেন। তিনি অন্তরাল থেকে বেরিয়ে এসে মানুষের জন্য কাজ করুন। আসলে তৃণমূলে তার অস্তিত্ব হারিয়ে গেছে।’

সিপিএমও সুর চড়িয়েছে বিষয়টি নিয়ে। উত্তর ২৪ পরগনা জেলা কমিটির সদস্য ইমতিয়াজ হোসেন বলেন, ‘জনগণ সাংসদ নুসরত জাহানকে ভোট দিয়ে প্রতারিত হয়েছেন। এলাকার কোনো উন্নয়ন করেননি। তাকে মানুষ দেখতেই পায়নি। তাই তারা এই পোস্টার সাঁটিয়ে নুসরাতের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিচ্ছেন।’

ট্যাগ: নুসরাত

বিনোদন
প্রচারণায় অনন্ত-বর্ষা, টিএসসিতে শিক্ষার্থীদের ঢল

banglanewspaper

এবারের ঈদুল আজহায় মুক্তি পেতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ও ইরানের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত চলচ্চিত্র ‘দিন-দ্য ডে’। এই সিনেমার বাংলাদেশের অংশের প্রযোজক অনন্ত জলিল। অর্থাৎ বাংলাদেশে শুটিংয়ে যে অর্থ ব্যয় হয়েছে, তিনি সেই অংশটুকুতেই লগ্নি করেছেন। অন্যান্য দেশের শুটিংয়ে ব্যয় বহন করেছে ইরানি প্রযোজক।

এর আগে সিনেমাটির একটি টিজার প্রকাশ হলে মূলত আলোচনা শুরু হয় সিনেমাটি নিয়ে। রোববার (১৯ জুন) রাতে সিনেমাটির সম্পূর্ণ ট্রেলার প্রকাশ করা হয় অনন্ত জলিলের ভেরিফায়েড অ্যাকাউন্টে। প্রকাশের পরপরই মিডিয়াপাড়ায় প্রশংসার জোয়ারে ভাসছে।

এবার এই সিনেমার প্রচারণায় নেমেছেন অনন্ত-বর্ষাসহ তাদের পুরো টিম। এই প্রচারণার অংশ হিসেবে শুক্রবার (২৫ জুন) সন্ধ্যায় তারা গিয়েছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিচার স্টুডেন্ট সেন্টারে (টিএসসি)। সেখানে শিক্ষার্থী ও সাধারণের ভালোবাসায় সিক্ত হয়েছেন ঢাকাই সিনেমার এ জুটি। তাদের একনজর দেখতে জনতার ঢল নামে সেখানে। সন্ধ্যায় টিএসসিতে ঢোকার সময় থেকেই তাদের ঘিরে ছিলেন ভক্ত-দর্শকরা। মিলনায়তনে ঢোকার পরও ছিল ভিড়।

প্রসঙ্গত, গল্পে দেখা যাবে, বাংলাদেশ থেকে যারা প্রবাসে যান, তারা বিভিন্ন সমস্যার মুখোমুখি হন। বাংলাদেশ, তুরস্ক, আফগানিস্তান, ইরান এই চার দেশ মিলিয়ে ‘দিন-দ্য ডে’ সিনেমায় উঠে আসবে সেই সব লোহমর্ষক প্রেক্ষাপট।

ইরানের নির্মাতা মুর্তজা অতাশ জমজমের পরিচালনায় এতে আন্তর্জাতিক সংস্থার পুলিশ অফিসারের চরিত্রে পর্দায় হাজির হবেন অনন্ত জলিল। নানারকম ভুল মতবাদে আসক্ত সন্ত্রাসীগোষ্ঠীকে দমন অভিযানে অংশ নেবেন তিনি।

এতে ইসলাম ধর্মের সঠিক ও সুন্দর বার্তা তুলে ধরা হয়েছে। অত্যাধুনিক সব প্রযুক্তির ব্যবহারের মাধ্যমে এই সিনেমাটিতে নিজেই নিজেকে ছাড়িয়ে গেছেন অনন্ত জলিল। এ ছাড়াও বাংলাদেশ ও ইরানের অভিনয়শিল্পীরা বিভিন্ন চরিত্রে রূপদান করেছেন।

ট্যাগ:

বিনোদন
পলাশের সঙ্গী হলেন সাদিয়া

banglanewspaper

‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ নাটকে কাবিলা চরিত্রে তুমুল জনপ্রিয়তা পেয়েছেন অভিনেতা জিয়াউল হক পলাশ। এবার একটি ওভিসিতে তার সঙ্গী হয়েছেন নবাগতা সাদিয়া আয়মান।

পলাশ গণমাধ্যমকে জানান, ‘কাজটি করতে গিয়ে একদল নতুন মানুষের সঙ্গে পরিচয় হয়েছে। শুটিং শেষে যখন বাড়ি ফিরছিলাম তখন আমার কাছে মনে হচ্ছিল, যাক এমন একদল মানুষের সঙ্গে কাজটি করতে পেরেছি, যারা হাসিমুখে দিনটা শুরু করেছেন আবার হাসিমুখেই আমাকে বাড়ি পাঠিয়েছেন। দিনশেষে আত্মতৃপ্তি নিয়ে বাড়ি ফেরাই বড় কথা। সবকিছু মিলিয়ে কাজের অভিজ্ঞতা দারুণ।’

সাদিয়ার সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতা প্রসঙ্গে পলাশ বলেন, ‘তার (সাদিয়া) সঙ্গে এটা আমার প্রথম কাজ। সে দারুণ পারফর্ম করেছে।’

অন্যদিকে সাদিয়া বলেন, ‘যে চরিত্রে অভিনয় করেছি, সেটি আমার জন্য এক নতুন অভিজ্ঞতা। পলাশ ভাইয়ের সঙ্গে কাজ করতে পেরে বেশ ভালো লাগছে। আশা করছি, দর্শকরা আমাদের কাজটি পছন্দ করবেন।’

গত মঙ্গলবার (২১ জুন) ওভিসিটির দৃশ্যধারণের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। এটি যৌথভাবে পরিচালনা করেছেন তরুণ নির্মাতা সিজু খান ও আকাশ হক।

ট্যাগ:

বিনোদন
‘টপ মডেল’ প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের জাবিবা

banglanewspaper

প্রথমবারের মতো বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় মডেল অনুসন্ধান এবং ফ্যাশন ইভেন্ট ‘টপ মডেল’ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে যাচ্ছেন বাংলাদেশের প্রতিযোগী জাবিবা সাজ্জাদ প্রেখা।

‘টপ মডেল ওয়ার্ল্ড ওয়াইড’ ও ‘টপ মডেল ইউকে’র যৌথ তত্ত্বাবধায়নে অনুষ্ঠিত টপ মডেল বাংলাদেশ প্রতিযোগিতায় ঢাকায় তাদের প্রথম মডেল অনুসন্ধান প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে বাংলাদেশের ফাইনালের বিচারক ছিল আন্তর্জাতিক ফ্যাশন সেলিব্রিটিদের একটি প্যানেল।

তারা হলেন- জুডি ফিটজেরাল্ড, অ্যাঞ্জেলিনা কালি এবং নাঈম ইয়াসিন। ২০২২ টপ মডেল বাংলাদেশ প্রতিযোগিতায় পাঁচটি জাতীয় বিভাগ রয়েছে।

বিভাগগুলো হলো- পুরুষ এডিটোরিয়াল (বয়স ১৮-২৯), পুরুষ কমার্শিয়াল (বয়স ৩০-৪২), নারী এডিটোরিয়াল (বয়স ১৪-১৯), নারী কমার্শিয়াল (বয়স ২০-২৯), নারী ক্ল্যাসিক (বয়স ৩০-৪০)।

প্রতিযোগিতায় বিজয়ীরা হলেন নারী এডিটোরিয়ালে জাবিবা সাজ্জাদ প্রেখা, নারী কমার্শিয়ালে তানাজ বসরি মিথি, নারী ক্ল্যাসিকে অধরা নিহারিকা, পুরুষ কমার্শিয়ালে তানভীর সামদানী এবং পুরুষ এডিটোরিয়ালে সাব্বির আহমেদ।

তাদের মধ্যে সামগ্রিকভাবে বিজয়ী হয়েছেন জাবিবা সাজ্জাদ প্রেখা এবং তিনি এখন বিশ্বব্যাপী বাংলাদেশের টপ মডেল।

প্রতিষ্ঠানটির এক বিজ্ঞপ্তিতে শনিবার (২৫ জুন) বলা হয়, নিজ খরচে প্রতিযোগীকে লন্ডনে নিয়ে যাওয়া হবে। যেখানে লন্ডন ফ্যাশন সপ্তাহ এবং বিশ্বব্যাপী শীর্ষ মডেল হওয়ার জন্য প্রতিযোগিতা করবেন জাবিবা। বিগত বছরের বিজয়ীর মতো আন্তর্জাতিক মডেল হওয়ার ক্ষেত্রে এটি তার জন্য দরজা খুলে দেবে।

বাংলাদেশে এই প্রতিযোগিতার সমন্বয় করেছে আন্তর্জাতিক মডেল ও ২০২১ সালে টপ মডেল ইউকের মুকুটজয়ী মাকসুদা আক্তার প্রিয়তী। তিনি বলেন, ‘এই প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে তরুণ বাংলাদেশি পুরুষ ও নারী মডেলদের জন্য আন্তর্জাতিকভাবে পরিচিতি লাভের একটি প্রকৃত সুযোগ।’

ট্যাগ:

বিনোদন
শাহরুখের ‘পাঠান’ সিনেমার পোস্টার চুরির অভিযোগ!

banglanewspaper

ঘোষণার পর থেকেই আলোচনায় রয়েছে বলিউড বাদশা শাহরুখ খানের আসন্ন সিনেমা ‘পাঠান’। বেশ কয়েকবার সিনেমার সেট থেকে ভাইরাল হয়েছে শাহরুখের লুক। তবে অফিশিয়ালি কোনো কিছুই তেমন প্রকাশ করেননি ‘পাঠান’ অভিনেতা।

২৫ জুন ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে ৩০ বছর পূর্ণ করেছেন রোমান্টিক কিং খ্যাত এই তারকা। ১৯৯২ সালের ২৫ জুন মুক্তি পায় শাহরুখ অভিনীত প্রথম সিনেমা ‘দিওয়ানা’। ইন্ড্রাস্টিতে ৩০ বছর পূর্ণ উপলক্ষে শনিবার (২৫ জুন) সোশ্যাল মিডিয়া পেজে ভক্তদের জন্য এসআরকে তার আসন্ন ‘পাঠান’ সিনেমার প্রথম লুক শেয়ার করেছেন। পোস্টারটি প্রকাশের পর ভক্ত ও অনুরাগীদের প্রশংসায় ভাসছেন শাহরুখ। অনেকেই আবার মুগ্ধ হয়েছেন পোস্টারে শাহরুখের লুকে।

তবে এসবের মধ্যেও বিতর্কের শুরু হয়েছে এই পোস্টার নিয়ে। অভিযোগ উঠেছে হলিউডের সিনেমার লুক নকল করেছেন অভিনেতা।

বলিউডের বিতর্কিত প্রযোজক কমল রশিদ খান এক টুইটার পোস্টে লিখেছেন, ‘ওহ মাই গড, কপিউড কখনোই উন্নতি করবে না। পাঠানের পোস্টারটিও চুরি করেছে। পোস্টারও কি অরিজিনাল বানানো যায় না।’

সেই সঙ্গে একটি ছবি শেয়ার দিয়েছেন, যেখানে পাঠান ছবির এই প্রথম লুকে, সুপারস্টার শাহরুখ খানকে হাতে একটি মেশিনগান ধরে পেছন দিক থেকে পোজ দিতে দেখা যায়। একইরকম পোস্টার হলিউড সিনেমা বিস্টেরও।

অন্য আরেকটি টুইটারে কেআরকে লিখেছন, ‘আমার সহজ প্রশ্ন, যদি পরিচালক, অভিনেতা এবং প্রযোজক একসঙ্গে যুক্তি দিয়ে পোস্টার তৈরি করতে না পারেন, তাহলে তারা কীভাবে একটি ভালো ছবি বানাবেন? আপনি যা ইচ্ছা তা দেখাবেন এসব নব্বইয়ের দশকে হতো। এখন আর এসব চলে না।

কেআরকের এই পোস্টের পর সোশ্যাল মিডিয়ায় মানুষের প্রতিক্রিয়ার বন্যা বইছে। বেশির ভাগ মানুষকেই তাকে উপদেশ দিতে দেখা গেছে। প্রসঙ্গত, এর আগে তামিল সুপারস্টার থালাপতি বিজয়ের সিনেমা বিস্টের বিরুদ্ধেও হলিউডের বিস্টের সিনেমার চুরির অভিযোগ উঠেছিল। তবে সিনেমার পোস্টার নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ঝড় বয়ে গেলেও বিষয়টি নিয়ে শাহরুখ বা যশরাজ ফিল্মসের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

উল্লেখ্য, পাঠান সিনেমার মধ্য দিয়ে বহুবছর পর বড় পর্দায় ফিরছেন শাহরুখ। তাকে শেষ দেখা গিয়েছিল ২০১৮ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত 'জিরো' সিনেমাতে।
 

ট্যাগ:

বিনোদন
প্রধানমন্ত্রীকে পরীর ধন্যবাদ

banglanewspaper

স্বপ্ন এখন বাস্তব। প্রমত্তা পদ্মার বুকে সগৌরবে দাঁড়িয়ে আছে স্বপ্নের পদ্মা সেতু। সরকারের অদম্য উদ্যোগে নিজস্ব অর্থায়নেই নির্মিত হয়েছে এই সেতু। শনিবার (২৫ জুন) দুপুর ১২টায় পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

পদ্মা সেতু নিয়ে বাংলাদেশিদের আবেগের অন্ত নেই। সাধারণ মানুষের পাশাপাশি শোবিজের তারকারাও নিজেদের উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন। সেই ধারাবাহিকতায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বেশ কয়েকটি ছবি পোস্ট করেন হালের জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা পরীমণি।

ছবির ক্যাপশনে লেখেন, “ধন্যবাদ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, ভালোবাসা।”

হ্যাশট্যাগ দিয়ে লেখেন, #স্বপ্নেরপদ্মাসেতু #শুভউদ্বোধন।

ট্যাগ: